শুক্রবার, ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / হাইলাকান্দিতে ২৩ জন চিকিৎসককে সংবর্ধনা দিল ড্রিমস

হাইলাকান্দিতে ২৩ জন চিকিৎসককে সংবর্ধনা দিল ড্রিমস

বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সাহিত্যিক শতানন্দ ভট্টাচার্য চিকিৎসকদের অবদানের কথা উল্লেখ করে বলেন যে রোগীর সামনে চিকিৎসকরা ভগবানের স্বরূ

নিউজফাইল সংবাদ
হাইলাকান্দি, জুলাই ১,

জাতীয় চিকিৎসক দিবস উপলক্ষ্যে হাইলাকান্দির এস কে রায় সিভিল হাসপাতালে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ২৩ জন চিকিৎসককে সংবর্ধনা দেয় সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা ড্রিমস। ড্রিমস ও যুগ্ম স্বাস্থ্য সঞ্চালকের ব্যবস্থাপনায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে শুরুতে উদ্দ্যেশ্য ব্যাখ্যা করেন ড্রিমস এর সভাপতি গৌতম গুপ্ত।

হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সুপারিনটেনডেন্ট ডাঃ শুভেন্দু চক্রবর্তীর পৌরহিত্যে অনুষ্ঠিত সভায় মুখ্য অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখতে গিয়ে স্বাস্থ্য বিভাগের যুগ্ম সঞ্চালক ডাঃ আশুতোষ বর্মন বলেন বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে চিকিৎসকরা দিন রাত সেবা কাজ করে যাচ্ছেন। তাঁরা নিজেদের জীবনকে বাজি রেখে পরিবার পরিজন থেকে দূরে থেকে রোগীদের সেবায় নিয়োজিত রয়েছেন। চিকিৎসকদের এদিন সন্মাননা জানানোয় তাঁরা আরো উৎসাহিত হয়ে কাজ করবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। প্রসুতি বিভাগের ডাঃ রণবিজয় মালাকার দেশের কৃতি ও মহান ব্যক্তিত্ব ডাঃ বিধান চন্দ্র রায়ের অবদানের কথা স্মরণ করে বলেন তাঁর জন্মদিন ও মৃত্যুদিন ১ জুলাই আর তাঁকে সম্মান জানিয়ে এইদিনটি জাতীয় চিকিৎসক দিবস হিসেবে পালন করা হয়। তিনি বলেন, এসকে রায় সিভিল হাসপাতালের পরিকাঠামোগত কিছুটা উন্নয়ন হলেও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিভাগের চিকিৎসক ও পর্যাপ্ত কর্মী না থাকায় অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে।

হাসপাতালের চিকিৎসকরা গৌতম গুপ্তকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের অভাবের কথা উল্লেখ করে এব্যাপারে সচেষ্ট হওয়ার জন্যে অনুরোধ করেন। গুপ্ত জানান, তিনি মুখ্যমন্ত্রী, স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং বিভাগীয় প্রধান আধিকারিককে জানাবেন এবিষয়ে এবং আশ্বাস দেন খুব শীঘ্রই উপর মহলের হস্তক্ষেপে এই সমস্যার সমাধান হবে।

ডাঃ চক্রবর্তী তাঁর ভাষণে বলেন, বর্তমানে হাসপাতালে মাসে আশি থেকে নব্বই জনের সিজারিয়ান ডেলিভারি করা হয়। একজন এনেস্থেসিয়ার ডাক্তার রয়েছেন। তাছাড়া হাসপাতালে সনোগ্রাফি মেশিন থাকলেও রেডিওলজিস্ট না থাকায় হাসপাতালে রোগীদের সনোগ্রাফি করা সম্ভব হচ্ছে না বলে বক্তব্যে উল্লেখ করেন।

বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সাহিত্যিক শতানন্দ ভট্টাচার্য চিকিৎসকদের অবদানের কথা উল্লেখ করে বলেন যে রোগীর সামনে চিকিৎসকরা ভগবানের স্বরূপ। চিকিৎসা ক্ষেত্রে মহিলা ডাক্তারের সংখ্যা বেড়ে চলেছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন এটা খুবই মঙ্গলজনক। তিনি বলেন তাঁরা যত্ন সহকারে রোগীর সেবা করতে সচেষ্ট। দেশের প্রথম মহিলা চিকিৎসক আনন্দিভাই গোপাল রাও যোশীর কথা উল্লেখ করেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ড্রিমসের সভাপতি গৌতম গুপ্ত।
প্রাসঙ্গিক বক্তব্য রাখেন ডেন্টাল সার্জন ডাঃ এম এইচ খন্দকার, ডাঃ ধ্রুব বণিক, জেলা বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী অনামিকা আচার্য প্রমুখ। এদিনের অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন সাংবাদিক শঙ্করী চৌধুরী।