শনিবার, ৩১শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / কর্ণাটকের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়ুয়াদের বিমার সুপারিশ

কর্ণাটকের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়ুয়াদের বিমার সুপারিশ

স্কুলের প্রতিটি ছাত্রছাত্রীর জন্য ২ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্য বিমার সুপারিশ করেছে কমিটি

মিঠুলাল চৌধুরী

ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শেষের পথে। তাই দেশের বেশ কয়েকটি রাজ্যে স্কুল ও কলেজ খোলার তোড়জোড় শুরু হয়েছে। কর্ণাটকেও তৎপরতা তুঙ্গে। স্কুল খোলার বিষয়ে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি তৈরি করেছে কর্ণাটক সরকার। যে কমিটির প্রধান হিসেবে রয়েছেন বিখ্যাত কার্ডিয়াক সার্জন ডাঃ দেবি শেঠি। করোনা পরিস্থিতিতে কিভাবে সংক্রমণ এড়িয়ে স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা নিরাপদে থাকতে পারে তা নিয়ে পর্যালোচনা করেছেন বিশেষজ্ঞ কমিটির সদস্যরা। শেঠির নেতৃত্বে ওই কমিটি স্কুল খোলা নিয়ে রাজ্য সরকারের কাছে একটি সুপারিশ জমা দিয়েছে। স্কুলের প্রতিটি ছাত্রছাত্রীর জন্য ২ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্য বিমার সুপারিশ করেছে কমিটি। করোনা পরিস্থিতিতে বেশ কয়েক মাস ধরে বন্ধ রয়েছে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো । তবে বর্তমানে সংক্রমণ কম হওয়ায় দেশের অনেক রাজ্য স্কুল খোলার ব্যাপারে চিন্তা করছে। কর্ণাটক সরকারের আশঙ্কা করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে অন্যান্য রাজ্যের পাশাপাশি কর্ণাটকেও বহু শিশু আক্রান্ত হতে পারে। তবে রাজ্যে স্কুল খোলার ব্যাপারে সাবধানতা অবলম্বন করার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা।


স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে যাতে সংক্রমণ ছড়াতে না পারে সে জন্য কর্তৃপক্ষকে চুড়ান্ত সতর্ক থাকতে হবে। স্কুলে নিয়মিত পড়াশুনার পাশাপাশি ছাত্র – ছাত্রীদের শারীরিক ও মানসিক বিকাশের দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। তবে যাবতীয় তৎপরতা নিয়েই এবার স্কুল খোলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে কর্ণাটক সরকার। কারণ বিশেষজ্ঞ কমিটির আশঙ্কা, এভাবে দিনের পর দিন স্কুল বন্ধ থাকলে বিপদ আরও বাড়বে। একদিকে যেমন গরিব ছাত্রছাত্রীরা অপুষ্টির শিকার হবে, তেমনি শিশু শ্রমিক ও বাল্যবিবাহের মতো বিপদ সমাজে মাথাচাড়া দিয়ে উঠবে। এইজন্য সতর্কতা অবলম্বন করে অবিলম্বে স্কুল শুরু করতে তৎপর কর্ণাটক সরকার।