শুক্রবার, ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / উত্তরবঙ্গের পর জঙ্গলমহল, ফের বঙ্গ ভঙ্গের দাবি

উত্তরবঙ্গের পর জঙ্গলমহল, ফের বঙ্গ ভঙ্গের দাবি

বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশের কারণে চা বলয়ের বাসিন্দারা নিজেদের এলাকায় কাজ পাচ্ছেন না। তা নিয়ে বিতর্ক চলার মধ্যেই নতুন বিতর্কের জন্ম দিলেন সৌমিত্র খাঁ।

মিঠুলাল চৌধুরী

পৃথক জঙ্গলমহল রাজ্য গঠিত হোক। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সমালোচনা করতে গিয়ে এমনই দাবি তুলেছেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। এ নিয়ে সংবাদ মাধ্যমের কাছে নানা যুক্তিও দিয়েছেন বিষ্ণুপুরের এই সাংসদ। কিন্তু তিনি যা বলেছেন তাতে রীতিমতো অস্বস্তিতে বিজেপি। দিন কয়েক আগে আলাদা উত্তরবঙ্গ রাজ্যের দাবি করে আলিপুরদুয়ারের বিজেপি সাংসদ জন বার্লা বলেছিলেন, উত্তরবঙ্গের মানুষ উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত। বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশের কারণে চা বলয়ের বাসিন্দারা নিজেদের এলাকায় কাজ পাচ্ছেন না। তা নিয়ে বিতর্ক চলার মধ্যেই নতুন বিতর্কের জন্ম দিলেন সৌমিত্র খাঁ।


একের পর এক বিজেপি সাংসদ মুখ খুলছেন। কেউ চাইছেন পৃথক রাজ্য হোক উত্তরবঙ্গ। আবার কেউ চাইছেন পৃথক রাজ্য হোক জঙ্গলমহল। কিন্তু স্বাভাবিক ভাবেই এখন প্রশ্ন উঠছে যে বাংলা দখলের জন্য অমিত শাহ বা জেপি নাড্ডারা এত উঠে পড়ে লেগেছিলেন, তাঁরা এখন মুখে কুলুপ এঁটে বসে রয়েছেন কেন ? বিজেপির কেন্দ্রিয় সভাপতি জেপি নাড্ডা এত চুপ কেন ? তাহলে কী বাংলায় যে সাংসদরা আওয়াজ তুলছেন বাংলাকে ভেঙে টুকরো করে দেওয়ার সেটা সমর্থন করছেন না শাহ এবং নাড্ডা ? এদিকে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, বাংলাকে ভেঙে নয়, বাংলাকে এক রেখেই তৃণমূলের অপশাসনকে রুখে বাংলার উন্নয়নের জন্য আমরা লড়াই করব। সোমবার বিরভূমে এক সাংবাদিক বৈঠকে রাজ্য সভাপতি আরও বলেন, মুকুল রায় দল ত্যাগ করে চলে যাওয়ায় বিজেপি রাহুমুক্ত হয়েছে। সাংসদ সৌমিত্র খাঁ ও জন বার্লা পৃথক উত্তরবঙ্গ এবং জঙ্গলমহল রাজ্যের দাবি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পশ্চিমবঙ্গকে একটি রাজ্য হিসেবেই দেখি। রাজ্যের উন্নয়ন ও অগ্রগতিই বিজেপির লক্ষ্য। এ বিষয়ে অন্য কেউ কী বললেন তার সঙ্গে দলের কোনও সম্পর্ক নেই।