বৃহস্পতিবার, ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / অসমে সোমবার থেকে কোভিড১৯ নতুন নির্দেশিকা

অসমে সোমবার থেকে কোভিড১৯ নতুন নির্দেশিকা

রাজ্যের কয়েকটি জেলায় সংক্রমণ কম হলেও ১৫টি জেলায় পরিস্থিতির এখনও উন্নতি হয়নি।

মিঠুলাল চৌধুরী

অসমে করোনা সংক্রমণ রুখতে সোমবার থেকে রাজ্যে কার্যকর হবে নতুন নির্দেশিকা। শুক্রবার রাজ্যের জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারদের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মার বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্তের কথা জানান রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কেশব মহন্ত। ওই বৈঠকে নতুন এসওপি তৈরিতে একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রাজ্যের ৩টি জেলা বিশ্বনাথ, গোয়ালপাড়া ও মরিগাঁও এবং বোকাখাত মহকুমাকেও কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। আন্তঃজেলা যাতায়াত বন্ধ থাকবে। গুয়াহাটীতে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় সেখানে কার্ফু শিথিল করা হয়েছে। গুয়াহাটীতে বিকেল ৪টে থেকে কার্যকর হবে করোনা কার্ফু। বিকেল ৩টে পর্যন্ত খোলা থাকবে দোকান ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান। তবে রাজ্যের অন্যান্য জেলাগুলোতে আগের মতোই করোনা কার্ফু বহাল থাকবে। দুপুর ১২ টায় বন্ধ হবে দোকান ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান এবং দুপুর ১টা থেকে কার্ফু জারি হবে। শুধুমাত্র চিরাং, মাজুলি, দক্ষিণ শালমারা, বঙ্গাইগাঁও, উদালগুড়ি, ডিমা হাসাও, কার্বি আংলং , চরাইদেউ এবং হাইলাকান্দি জেলায় দোকান ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এবং করোনা কার্ফু কার্যকর হবে বিকেল ৫টা থেকে। আগামী এক সপ্তাহ অর্থাৎ ৪ জুলাই পর্যন্ত এই নতুন নির্দেশিকা কার্যকর থাকবে। এদিকে রাজ্যের কয়েকটি জেলায় সংক্রমণ কম হলেও ১৫টি জেলায় পরিস্থিতির এখনও উন্নতি হয়নি। সেজন্য সংক্রমণ ঠেকাতে এই ১৫টি জেলার ২২০টি এলাকাকে হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত করে কন্টেইনমেন্ট জোন তৈরির নির্দেশ জেলাশাসকদের দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা পজিটিভিটির হার বিশ্বনাথ ও গোলাঘাট জেলায় সবচেয়ে বেশি। এছাড়াও যোরহাট, ডিব্রুগড়, লখিমপুর, বাক্সা, উদালগুড়ি, শোনিতপুর, মরিগাঁও, নগাঁও, কামরূপ ( গ্রামীণ ), ধেমাজি ও শিবসাগর জেলায় করোনা সংক্রমণ এখনও বিপজ্জনক স্তরে রয়েছে। কিন্তু সরকার এই জেলাগুলিতে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এদিকে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে সংক্রমণের হার বেশি থাকা অঞ্চলকে মাইক্রো কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করতে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন।