রবিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / অলিম্পিকে শর্ত সাপেক্ষে দর্শক প্রবেশের অনুমতি

অলিম্পিকে শর্ত সাপেক্ষে দর্শক প্রবেশের অনুমতি

পাবলিক ইভেন্টগুলি নিয়ে সরকারের বিধিনিষেধকে মান্যতা দিয়েই অলিম্পিকের কেন্দ্রগুলিতে দর্শকাসনের ৫০ শতাংশে দর্শকদের প্রবেশাধিকার দেওয়া হচ্ছে।

মিঠুলাল চৌধুরী

আগামী ২৩ জুলাই থেকে শুরু হবে টোকিও অলিম্পিক। এই মুহুর্তে জাপানে আছড়ে পড়েছে করোনার চতুর্থ ঢেউ। ফলে জাপানের মানুষ, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল এই অবস্থায় সেখানে অলিম্পিক আয়োজনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছেন। কিন্তু এর মধ্যেই জাপানে টোকিও অলিম্পিকের আয়োজকরা করোনা পরিস্থিতিতে দর্শকদের অনুমতির বিষয়ে বড় সিদ্ধান্ত নিলেন। স্টেডিয়ামের ৫০ শতাংশ আসনে দর্শকদের প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে যেগুলো বড় স্টেডিয়াম সেখানে ১০ হাজারের বেশি দর্শককে খেলা দেখার অনুমতি দেওয়া হবে না। অলিম্পিকের সব কেন্দ্রের জন্য এই নিয়ম প্রযোজ্য। যদিও বিদেশি দর্শকদের জন্য নিষেধাজ্ঞা জারি থাকছে। একমাত্র জাপানে বসবাসকারীরাই অলিম্পিক দেখার সুযোগ পাবেন বলে গত মার্চেই জানিয়ে দিয়েছিলেন আয়োজকরা। সোমবার অলিম্পিক আয়োজকদের পক্ষ থেকে এক বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। সেখানেই জানানো হল, পাবলিক ইভেন্টগুলি নিয়ে সরকারের বিধিনিষেধকে মান্যতা দিয়েই অলিম্পিকের কেন্দ্রগুলিতে দর্শকাসনের ৫০ শতাংশে দর্শকদের প্রবেশাধিকার দেওয়া হচ্ছে। তবে কোনওভাবেই সেই সংখ্যা ১০ হাজার পেরোবে না।


এদিকে প্যারা অলিম্পিকে কতজন দর্শক স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে পারবেন, সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আগামী ১৬ জুলাই গ্রহণ করা হবে। জাপান সরকারের পরামর্শদাতা এবং স্বাস্থ্য বিভাগের সঙ্গে যুক্ত থাকা অভিজ্ঞরা ইতিমধ্যেই বলেছেন, ক্লোজভডোরে অলিম্পিক আয়োজন করাই সব থেকে নিরাপদ। টোকিওর গভর্নর বলেছেন, টোকিওতে করোনা সংক্রমণের যা পরিস্থিতি তা খারাপ হলে নিশ্চিতভাবেই আমাদের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে হবে। সেক্ষেত্রে দর্শক প্রবেশের বিষয়টি নিয়ে আমরা ফের আলোচনা করব। আইওসি প্রধান থমাস বাখ জানিয়েছেন, জাপানবাসী এবং অংশগ্রহণকারী সকলের সুরক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করেই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। অর্থাৎ , দর্শক প্রবেশের অনুমতি মিললেও স্টেডিয়ামে বসেই যে দর্শকরা অলিম্পিক দেখতে পারবেন তার পুরোপুরি গ্যারান্টি এখনই নেই।