শুক্রবার, ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / মধ্য প্রদেশের মিয়াজাকি আম, প্রতি কেজি ২.৭০ লক্ষ টাকা

মধ্য প্রদেশের মিয়াজাকি আম, প্রতি কেজি ২.৭০ লক্ষ টাকা

বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বিরল ও দামি জাপানের মিয়াজাকি আম।

মিঠুলাল চৌধুরী

মধ্য প্রদেশের এক দম্পতি বিশ্বের সবচেয়ে দামি জাপানের মিয়াজাকি আম ফলিয়েছেন। এবং সেই আমের গাছ পাহারায় আছে ৪ জন নিরাপত্তা রক্ষী ও ৬টি কুকুর। উল্লেখ্য, ফলের রাজা আম, গোটা বিশ্বে নানা প্রকারের আম রয়েছে। ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে আদিকাল থেকে একাধিক রকমের আমের ফলন হয়। যার স্বাদ, গন্ধ ও রং আলাদা ও অতুলনীয়। মধ্য প্রদেশের ওই দম্পতির নিজের বাগানে এই মিয়াজাকি আম গাছ রয়েছে। জব্বলপুরের বাসিন্দা সংকল্প পরিহাস ট্রেনে চেন্নাই যাওয়ার সময় এক ব্যক্তি কিছু আমের চারাগাছ উপহার দেন। তিনি এবং তাঁর স্ত্রী রানি তাঁদের বাগানে ওই চারাগাছগুলো লাগান। তবে তারা অবাক হন যখন দেখেন ওই গাছগুলিতে যে আমগুলো ফলেছে তার রং সবুজ বা হলুদ নয় এক্কেবারে লাল। প্রথমে ওই দম্পতি লাল রঙের আম দেখে অবাক হয়ে যান। এরপর গবেষণা করে দেখেন যে এটি একটি বিরল ফল, যার বাজার মুল্য প্রচুর।


বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বিরল ও দামি জাপানের মিয়াজাকি আম। যার অনেক চাহিদা রয়েছে আন্তর্জাতিক ফলের বাজারে। গত বছর আন্তর্জাতিক বাজারে এই আম প্রতি কেজি বিক্রি হয়েছিল ২.৭০ লক্ষ টাকায়। যারফলে ওই দম্পতির বাগানে গত বছর চোরেরা আমের লোভে হানা দিয়েছিল। চোরেরা আম নিয়ে গেলেও, দম্পতি তাঁদের আমগাছগুলি বাঁচাতে পেরেছিলেন। কিন্তু এই বছর তাঁরা কোনও ঝুঁকি নেননি। মিয়াজাকি আম ও গাছ পাহারা দেওয়ার জন্য নিরাপত্তা রক্ষী ও কুকুর মোতায়েন করা হয়েছে বাগানে। ওই দম্পতি বর্তমানে এই আমের অর্ডার নিতে শুরু করেছেন। এবং তাঁরা নানান ধরনের অফারও ক্রেতাদের দিচ্ছেন। তাঁরা গুজরাটের এক ব্যবসায়ীকে ২১ হাজার টাকায় একটি আম বিক্রি করার প্রস্তাবও দিয়েছেন। এই আম শুধু খেতেই সুস্বাদু নয়, এর রয়েছে নানা গুণাগুণও । জাপানের মিয়াজাকি শহরে এই লাল রঙের আম প্রথম ফলে, তাই এই আমের নাম এই শহরের নামে রাখা হয়েছে।