শনিবার, ২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / ত্রিপুরায় গেরুয়া শিবিরে ধসের আশঙ্কা, বৈঠকে কেন্দ্রিয় নেতৃত্ব

ত্রিপুরায় গেরুয়া শিবিরে ধসের আশঙ্কা, বৈঠকে কেন্দ্রিয় নেতৃত্ব

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে হঠানোর জন্য গত বছর সুদীপ রায় বর্মন ও তাঁর কয়েকজন ঘনিষ্ট বিধায়ক দিল্লিতে গিয়েছিলেন।

মিঠুলাল চৌধুরী

ত্রিপুরা বিজেপিতে ধস নামার আশঙ্কায় বিজেপির কেন্দ্রিয় নেতারা নড়েচড়ে বসলেন। গত বুধবার দলের কেন্দ্রিয় সাধারণ সম্পাদক বিএল সন্তোষের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল ত্রিপুরায় আসে। কেন্দ্রিয় নেতারা রাজ্যের মন্ত্রী ও বিধায়কদের সঙ্গে গত দুদিন ধরে দফায় দফায় আলাদাভাবে দেখা করে কথা বলেন। রাজনৈতিক মহল মনে করছেন, ২০১৭ সনে বর্তমান বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গে মুকুল রায় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরতেই সুদীপ রায় বর্মনও তৃণমূলে ফিরতে পারেন বলে রাজ্যে জল্পনা কল্পনা ছড়িয়েছে।


উল্লেখ্য, ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে হঠানোর জন্য গত বছর সুদীপ রায় বর্মন ও তাঁর কয়েকজন ঘনিষ্ট বিধায়ক দিল্লিতে গিয়েছিলেন। যদিও একথা স্বীকার করেন নি বিধায়ক রায়বর্মন। পশ্চিমবঙ্গে গত ২ মে – র পর অনেক বিজেপি কর্মীরা তৃণমূলে যাওয়ার জন্য বর্তমানে নাকি আগ্রহী। বঙ্গ বিজেপিকে বড় ধাক্কা দিয়ে তৃণমূলে চলে গিয়েছেন মুকুল রায়। এখন তাঁকে অনুসরণ করে তৃণমূলে ফেরার জন্য পশ্চিমবঙ্গেই শুধু নয়, ত্রিপুরাতেও বিজেপিতে ভাঙনের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। এই আশঙ্কা যাতে বাস্তবে পরিণত না হয় সেজন্য ত্রিপুরার বিজেপি নেতাদের সাথে বৈঠকে করেছেন বিএল সন্তোষ। এ ব্যাপারে দলের সভাপতি মানিক সাহার বক্তব্য, সংগঠনকে শক্তিশালী করতে ও ভবিষ্যতে দলকে রাজ্যে নতুন দিশা দেখাতেই তাঁরা এসেছেন। তবে একাংশ বিধায়কদের দল ছাড়ার ব্যাপারে তিনি বলেন, এমন কোন খবর আমাদের কাছে নেই। সমস্ত বিধায়করা আমাদের সঙ্গেই আছেন। যদি কোন সমস্যা থেকেও থাকে তা মিটে গিয়েছে, বিজেপি নেতৃত্বের মধ্যে কোনও সমস্যা নেই। আমরা একটা পরিবারের মধ্যে রয়েছি।