শনিবার, ২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / সিলিন্ডার বিস্ফোরণে বেঙ্গালুরুতে নিহত তিন, আহত দুই করিমগঞ্জে শোক  

সিলিন্ডার বিস্ফোরণে বেঙ্গালুরুতে নিহত তিন, আহত দুই করিমগঞ্জে শোক  

এই ঘটনায় রাতাবাড়িসহ গোটা করিমগঞ্জে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

অরুপ রায় 
করিমগঞ্জ, জুন ৬,

চারিদিকে করোনা রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যর মিছিল চলছে টিক সেই সময় উনুনের গ্যাস থেকে আগুন লেগে একই পরিবারের তিনজনের মৃত্যু এবং দুজন সঙ্কটজনক অবস্থায় । মর্মান্তিক এই ঘটনা বেঙ্গালুরুর । তবে যাঁরা অগ্নিকাণ্ডের শিকার হয়েছেন তাদের সবার বাড়ি দক্ষিণ অসমের করিমগঞ্জ জেলার রাতাবাড়ির কেকড়াগুল চা বাগান এলাকায় । এই ঘটনায় রাতাবাড়িসহ গোটা করিমগঞ্জে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।ঘটনার খবর পেয়ে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন রাতাবাড়ির বিধায়ক বিজয় মালাকার । তিনি বলেন, আমার পক্ষ থেকে সবধরনের সহযোগিতা করে যাবো । একই সঙ্গে সোমবার মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মার সঙ্গে দেখা করে বিস্তারিত তুলে ধরবো এবং তার মাধ্যমে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় তার জন্য কাজ করে যাবো ।ঘটনার বিবরণে প্রকাশ বেঙ্গালুরুতে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে জীবন্ত অগ্নি দগ্ধ হয়ে মারা গেলেন একই পরিবারের তিন সদস্য।আর দুই সদস্য এখনো মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটেছে গত ১জুন।রাতাবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত কেকড়াগুল বাগানের হত দরিদ্র মনু মালা কর্মসুত্রে বেঙ্গালুরুতে ছিলেন। তিনি একটি বেসরকারি কোম্পানীতে কর্মরত ছিলেন।মনু মালার পরিবারও সঙ্গে ছিলেন। বৃদ্ধ মা, স্ত্রী, এক ছেলে ও এক কন্যাকে নিয়ে ছিল মনুর সুখী পরিবার। কিন্তু ভাগ্যের নিষ্ঠুর পরিহাস।১জুন গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে পরিবারের পাঁচ সদস্য অগ্নিদগ্ধ হন।ওই দিনই হাসপাতালে মারা যান স্ত্রী বিন্দা মালা।চার দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে আজ মারা যান বৃদ্ধা মা লছমী মালা ও কিশোর পুত্র সম্রাট মালা।মনু মালা ও তার ১২বছর বয়সী শিশু কন্যা আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে ভর্তি আছেন।এই করুন ঘটনার খবর রাতাবাড়ির কেকড়াগুল বাগান সহ গোটা জেলায়  শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বাগান শ্রমিকদের পক্ষ থেকে এই অসহায় এবং মর্মান্তিক দুর্ঘটনার শিকার পরিবারের সাহায্য এগিয়ে আসার জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। সাংসদ কৃপানাথ মালাহ মর্মান্তিক এই ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেন।তিনি নিহতদের শ্রদ্ধা জানিয়ে আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন।সাংসদ ফোনে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেন এবং অসম সরকার মনুর পরিবারের সদস্যদের সাহায্যে এগিয়ে আসার আবেদন জানান ।