বৃহস্পতিবার, ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / করোনার সময় ৯ হাজার মানুষের মৃত্যু রেলে কাটা পড়ে

করোনার সময় ৯ হাজার মানুষের মৃত্যু রেলে কাটা পড়ে

প্রসঙ্গত, ২০২০ সনের ২৫ মার্চ থেকে দেশে বন্ধ রয়েছে প্যাসেঞ্জার ট্রেন পরিষেবা।

মিঠুলাল চৌধুরী

করোনাকালে প্রায় ৯ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে রেললাইনে কাটা পড়ে। ভাবা যায়! যার মধ্যে বেশিরভাগই পরিযায়ী শ্রমিক। তথ্য দিয়ে e খবর জানাল রেলওয়ে বোর্ড। তারা জানিয়েছে, ২০২০ সনে লকডাউন চলাকালিন প্যাসেঞ্জার ট্রেন বন্ধ ছিল, তখন প্রায় ৮ হাজার ৭০০ জনের রেললাইনে মৃত্যু হয়েছে। মধ্য প্রদেশের বাসিন্দা চন্দ্র শেখর গৌর গোটা দেশে রেললাইনে কত মানুষের মৃত্যু হয়েছে জানতে চেয়ে তথ্য জানার অধিকার আইনে আবেদন করেছিলেন। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে ২০২০ সনের জানুয়ারি মাস থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট মৃত্যুর সংখ্যার রেল হিসেব দিয়েছে। রেল বলছে, যে তথ্য রাজ্যগুলোর থেকে পাওয়া গিয়েছে তাতে মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৭৩৩ জনের এবং আহত হয়েছেন ৮০৫ জন।
মৃতদের মধ্যে পরিযায়ী শ্রমিকও রয়েছেন। যারা দেশে লকডাউন ঘোষণা হওয়ার পর পায়ে হেঁটে নিজেদের বাড়ি ফেরার জন্য রেললাইনের পথ বেছে নেন। রেলের বক্তব্য, হাইওয়ের বদলে রেললাইন দিয়ে গন্তব্যে পৌঁছনো যায় অনেক সহজে। আবার অনেকে পুলিশের চোখ এড়ানোর জন্যও রেললাইনের পথ বেছে নিয়েছেন। কিন্তু মাঝপথেই রেললাইনে প্রাণ হারাবেন তা তারা বুঝতেই পারেননি। তারা হয়তো ভেবেছিলেন লকডাউনের কারণে সব ধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে।


প্রসঙ্গত, ২০২০ সনের ২৫ মার্চ থেকে দেশে বন্ধ রয়েছে প্যাসেঞ্জার ট্রেন পরিষেবা। এরপরই দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে নিজেদের বাড়ি ফিরতে শুরু করেন পরিযায়ী শ্রমিকরা। এদিকে হঠ্যাৎ করে দেশে লকডাউন জারি হলেও পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য কোনও ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়নি। শেষপর্যন্ত এই রেললাইন দিয়ে হাঁটতে গিয়েই বহু মানুষ প্রাণ হারান।