শনিবার, ৩১শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / সি ভোটার সমীক্ষায় দাবি, ‘করোনা মোকাবেলা’ মোদি সরকারের সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা

সি ভোটার সমীক্ষায় দাবি, ‘করোনা মোকাবেলা’ মোদি সরকারের সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা

এছাড়া ৪১.১ শতাংশ লোক বলছেন, করোনা সংকটের মোকাবেলা এই সরকারের সবথেকে বড় ব্যর্থতা। এই সমীক্ষা বলছে, মোদি সরকারের দ্বিতীয় বড় ব্যর্থতা নতুন কৃষি আইন।

মিঠুলাল চৌধুরী

রবিবার মোদি সরকারের সপ্তম বর্ষপূর্তি ছিল। করোনা মহামারী মোকাবেলাই বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা। সি ভোটারের মোদি ২.০ রিপোর্টে এমনই তথ্য উঠে এসেছে। ওই সমীক্ষা অনুযায়ী এই ৭ বছরের শাসনকালে কেন্দ্রের সবচেয়ে বড় সাফল্য হল সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করা। কিন্তু ঠিকমতো করোনা সঙ্কট মোকাবেলা করতে না পারা এই সরকারের সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা। ১ জানুয়ারি থেকে ২৮ মে পর্যন্ত সমীক্ষা চালানো হয়। ৫৪৩টি লোকসভা কেন্দ্রের ১.৩৯ লক্ষ লোকের মতামত নেওয়া হয়। সমীক্ষায় উঠে এসেছে বিভিন্ন ইস্যুতে ভোটাররা মোদি সরকারের উপর হতাশ। সমীক্ষায় ৪৭.৪ শতাংশ লোক বলেছেন, মোদি ২.০ – র সবথেকে বড় সাফল্য ৩৭০ ধারা রদ। এছাড়া ৪১.১ শতাংশ লোক বলছেন, করোনা সংকটের মোকাবেলা এই সরকারের সবথেকে বড় ব্যর্থতা। এই সমীক্ষা বলছে, মোদি সরকারের দ্বিতীয় বড় ব্যর্থতা নতুন কৃষি আইন। কৃষক সম্প্রদায়ের ২৩.১ শতাংশ মানুষ অসন্তুষ্ট। ৫২.৩ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন, লকডাউনের সময় তাঁদের কাছে সরকারের সাহায্য পৌঁছায়নি। সমীক্ষায় অংশ নেওয়া ৫৫ শতাংশ মানুষ মনে করছেন, এ বছর কুম্ভমেলা হওয়া উচিত ছিল নামমাত্র। অন্যদিকে দেশের প্রায় ৪৪ শতাংশ মানুষ মনে করছেন, এই মহামারীর সময়ে সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্প নিয়ে এগোনো ঠিক হয়নি। এছাড়া মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউয়ের মধ্যে ভোটপ্রচার নিয়েও ভোটাররা অখুশি। ৫৯.৭ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন, দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মোদির ভোটপ্রচারে যোগ দেওয়া ভুল ছিল। তবে এই সরকারের প্রতি ক্ষোভ থাকলেও ভোটাররা এখনও রাহুল গান্ধীকে চান না। ভোটারদের কাছে প্রশ্ন ছিল, আপনারা কি মনে করেন, যদি রাহুল গান্ধী দেশের প্রধানমন্ত্রী থাকতেন তাহলে তিনি করোনা পরিস্থিতির আরও ভাল মোকাবেলা করতে পারতেন ? নাকি নরেন্দ্র মোদিই এটা সম্ভাব্য সবথেকে ভালভাবে মোকাবেলা করছেন? এর উত্তরে ৬৩.১ শতাংশ মানুষ বলেছেন, মোদি সম্ভাব্য সবথেকে ভালভাবে পরিস্থিতির মোকাবিলা করছেন। প্রায় ৬০.৮ শতাংশ ভোটার মতপ্রকাশ করেছেন, ৫ রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিধানসভা নির্বাচন এবং উত্তরপ্রদেশে পঞ্চায়েত নির্বাচন স্থগিত রাখা উচিত ছিল।