শুক্রবার, ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / টুইটার ছাড়া গুগল, ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপের অবস্থান স্পষ্ট করল

টুইটার ছাড়া গুগল, ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপের অবস্থান স্পষ্ট করল

টুইটারের পক্ষ থেকে এখলো কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। কেন্দ্রের নয়া ডিজিটাল নীতি ২৬ মে থেকে কার্যকর করা হয়েছে।

মিঠুলাল চৌধুরী

কেন্দ্রিয় সরকার ভুয়ো সংবাদ পরিবেশন রুখতে নতুন ডিজিটাল নীতি তৈরি করেছে। সোশ্যাল মিডিয়াগুলোকে নয়া ডিজিটাল নীতি সম্পর্কে বিশদ আগেই জানিয়েছিল কেন্দ্রিয় সরকার। নয়া নীতি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াগুলো কী অবস্থান নিচ্ছে তা ১৫ দিনের মধ্যে সবিস্তারে জানাতে বলেছিল তথ‌্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক। সেই নির্দেশ মতো এবার নতুন ডিজিটাল নীতি নিয়ে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করল গুগল, ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ । কেন্দ্রের নয়া ডিজিটাল নীতি সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে তাদের মতামত জানিয়েছে সংস্থাগুলি। কিন্ত টুইটারের পক্ষ থেকে এখলো কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। কেন্দ্রের নয়া ডিজিটাল নীতি ২৬ মে থেকে কার্যকর করা হয়েছে।
সোশ্যাল মিডিয়াগুলোর অবস্থান জানতে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের পক্ষ থেকে ৩ জন প্রশাসনিক কর্তাকে নিয়োগ করা হয়েছিল। কেন্দ্রের ৩ কর্তার কাছেই বিস্তারিতভাবে নয়া ডিজিটাল নীতি সম্পর্কে মতামত জানিয়েছে গুগল, ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ । নয়া ডিজিটাল নীতি সম্পর্কে কেন্দ্রিয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভরেকর জানিয়েছিলেন, ভুয়ো তথ্যের পরিবেশন রুখতে সরকার এই নয়া নীতি কার্যকর করতে চাইছে। ভারতবাসীর সুরক্ষার স্বার্থেই কেন্দ্রের এই পদক্ষেপ বলেও তিনি দিনকয়েক আগে জানান। কিন্ত টুইটারের পক্ষ থেকে এখনও সাড়া মেলেনি। কেন্দ্রের নয়া ডিজিটাল নীতি সম্পর্কে তাদের মতামত ঠিক কী বা আদৌ কেন্দ্রের নিয়ম নীতি তারা মেনে চলবে কিনা সে ব্যপারে সংস্থার তরফে এখনও পর্যন্ত কিছু জানানো হয়নি বলেই জানা গিয়েছে। নয়া নীতি মানতে ৩ মাসের সময় ইতিমধ্যেই চেয়ে নিয়েছে টুইটার।
এদিকে শনিবার আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ জানিয়ে দিলেন, ভারতের আইনকে সম্মান করতে হবে টুইটারকে । সেই সঙ্গে দেশের সার্বভৌমত্ব নিয়ে কোনও আপস সরকার করবে না। এই নেটমাধ্যমগুলো ভারত থেকে প্রচুর মুনাফা পায়। ভারতের আইন আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।