মঙ্গলবার, ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / নাইট কার্ফুতে দুটি ঐতিহ্যবাহী মন্দিরে চুরি কদমতলায়, পুলিশের ভুমিকায় ক্ষোভ

নাইট কার্ফুতে দুটি ঐতিহ্যবাহী মন্দিরে চুরি কদমতলায়, পুলিশের ভুমিকায় ক্ষোভ

সোমবার সাত সকালে স্হানীয় লোকজন মন্দিরের দরজার তালা ভাঙ্গা ও প্রনামির বাক্স ভাঙ্গা দেখে কদমতলা থানায় খবর দেন।কদমতলা থানার পুলিশ অভিযানের নামে লোক দেখানোর জন্য চুরি যাওয়া দুটি আশ্রম পরিদর্শন করলেও চোরের কোন হদিস পায়নি।

অরুপ রায়
করিমগঞ্জ, মে ২৫,

অসম-ত্রিপুরা সীমান্তের কদমতলা থানার অন্তর্গত কদমতলা গ্রাম পঞ্চায়েতের নরসিংহ বাড়ি ও সন্ন্যাসী বাড়ি আশ্রমে চুরি কান্ড ঘটে গেলো বর্তমান করোনা কালের জন্য থাকা সান্ধ্য আইনের মাঝেই।মন্দিরের দানবাক্সের তালা ভেঙ্গে নগদ অর্থ সহ মন্দিরের দামি আসবাব পত্র নিয়ে যায় চোরের দল।নাইট কার্ফু শুরু হওয়ার পর নিশিকুটুম্বদের উৎপাত মাত্রাধিক ভাবে বেড়ে গেছে। এতে প্রতিদিন গৃহস্থের ঘরসহ দোকানপাট পাশাপাশি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানেও হাত সাফাই করতে বাদ যাচ্ছেনা চোরের হাত থেকে।তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে নাইট কার্ফু র সময় পুলিশি নিরাপত্তা প্রশ্ন চিহ্নের মুখে।তেমনি গতকাল গভীর রাতে উত্তর জেলার কদমতলা থানাধীন কদমতলা গ্রাম পঞ্চায়েতের ঐতিহ্যবাহী নরসিংহ বাড়ি ও সন্ন্যাসী বাড়ি আশ্রমে তান্ডব চালায় চোরের দল।দুটি মন্দিরে থাকা ৬ টি প্রনামি বাক্সের তালা ভেঙ্গে প্রচুর পরিমানে নগদ অর্থ সহ দামি আসবাবপত্র নিয়ে যায় চোরের দল।

সোমবার সাত সকালে স্হানীয় লোকজন মন্দিরের দরজার তালা ভাঙ্গা ও প্রনামির বাক্স ভাঙ্গা দেখে কদমতলা থানায় খবর দেন।কদমতলা থানার পুলিশ অভিযানের নামে লোক দেখানোর জন্য চুরি যাওয়া দুটি আশ্রম পরিদর্শন করলেও চোরের কোন হদিস পায়নি।তবে স্হানীয়দের বক্তব্য, নাইট কার্ফু জারি হওয়ার পর থেকে পুলিশ রাতের টহলদারি কমে গেছে।তাই গোটা কদমতলা এলাকায় স্হানীয় জনগন চোরের আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন।স্হানীয়রা কদমতলা থানার পুলিশের উপর অসন্তুষ্ট হয়ে সোমবার থেকে এই দুটি এলাকায় নিজ থেকে রাতে পাহারা দেওয়া শুরু করবেন বলে জানিয়েছেন এলাকার জনগন।