শনিবার, ২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / ঘন্টা তিনেকের বৃষ্টিতেই ভাসলো করিমগঞ্জ শহর

ঘন্টা তিনেকের বৃষ্টিতেই ভাসলো করিমগঞ্জ শহর

ছন্তর বাজার, রামকৃষ্ণ মিশনের সম্মুখ সহ মেন রোডের অনেক জায়গায় জমা জলে মিনি বন‍্যার সৃষ্টি হয়েছে।

অরুপ রায়

করিমগঞ্জ, মে ১৮,
করিমগঞ্জে বৃষ্টির জমা জলে শহরের অবস্থা বেহাল। সব রাস্তাঘাট, বাজার এলাকাসহ মানুষের ঘরে জল ঢুকে এক ভয়ংকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। বাজারের ব্যবসায়ীরা অনেক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন l শহরের সড়কে হাঁটু জল। বাজার সহ মানুষের ঘরে জল ঢুকে ক্ষতির পরিমাণ প্রায় কয়েক লক্ষ টাকা। বৃষ্টি চলছে। দিনভর বৃষ্টির পর রাতেও অবিরাম বৃষ্টির সম্ভাবনা। বহু মানুষ ঘরে জল ঢুকার ভয়ে চিন্তিত। l ছন্তর বাজার, রামকৃষ্ণ মিশনের সম্মুখ সহ মেন রোডের অনেক জায়গায় জমা জলে মিনি বন‍্যার সৃষ্টি হয়েছে। মিশনের সম্মুখ, মিশন রোড, স্টেট ব‍্যাঙ্কের সম্মুখ, রেডক্রস রোড, সেটেলমেন্ট সহ অধিকাংশ এলাকা জলের তলায়। রামকৃষ্ণ মিশন সহ মিশন রোড, চিত্তরঞ্জন লেন, রমণি রোড, পাগলা পট্টি, সুভাষ নগর প্রভৃতি এলাকার বহু ঘরে জল ঢুকে যাওয়ার ফলে জরুরি সামগ্রি নষ্ট হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। রামকৃষ্ণ মিশনের মহারাজের হাতে গত বছর পুরস্কার তুলে দিয়ে রাজ‍্যের এক মন্ত্রী সহ স্থানীয় বিজেপি নেতা ও জেলা শাসক মিশনের জন‍্য একটি প্রকল্প হাতে নেওয়ার কথা বলেছিলেন। কিন্তু এক বছরের মধ্যে তার কোনো অগ্রগতি হয় নি। মঙ্গলবারের অবিরাম বৃষ্টির ফলে জমা জল মিশনের ভেতরেও ঢুকে যায়। পুরসভার ত্রুটিপূর্ণ মাস্টার ড্রেনেজের জন‍্য মানুষের অবস্থা বেহাল। আর এনিয়ে চুপচাপ বসে রয়েছেন বিধায়ক, কংগ্রেস সহ বিজেপি নেতৃত্ব, অভিযোগ। অপরিকল্পিতভাবে ড্রেন তৈরির ফলেই জমা জলে নাগরিকদের অবস্থা বেহাল। গতবছর এনিয়ে অনেক হৈচৈ হয়। এরপর পুরসভার দায়িত্ব প্রাপ্ত আধিকারিক কয়েকটি জায়গায় ড্রেনের ব্লক জেসিভি দিয়ে ছুটিয়ে দেন। এবং ড্রেনকে দখল মুক্ত করতে উদ‍্যোগী হন। যদিও কাজ অর্ধেক করেই বন্ধ করে দেওয়া হয়।করিমগঞ্জে যদি এভাবে বৃষ্টি হয় তাহলে নাগরিক সমস্যা আরও বৃদ্ধি পাবে তাই পরিস্থিতির দিকে চিন্তা করে করিমগঞ্জের মাস্টার ড্রেনেজ সমস্যা নিরসনের জন্য জেলা শাসকের হস্তক্ষেপ চাওয়া হয়েছে বিভিন্ন সংগঠনের তরফ থেকে।