রবিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / পশ্চিমবঙ্গে সংক্রমণ রুখতে সম্পূর্ণ লকডাউন

পশ্চিমবঙ্গে সংক্রমণ রুখতে সম্পূর্ণ লকডাউন

উল্লেখ্য গত শুক্রবার রাজ্যে একদিন আক্রান্ত হয়েছেন ২০,৮৪৬ জন। এযাবৎ আক্রান্তের সংখ্যা ১০, ৯৪, ৮০২ জন। মৃত্যু হয়েছে ১২,৯৯৩ জনের।

মিঠুলাল চৌধুরী

পশ্চিমবঙ্গে বেলাগাম করোনা মোকাবেলায় শেষপর্যন্ত পরিস্থিতি বিচার করে রাজ্য সরকার সম্পূর্ণ লকডাউনে যেতে বাধ্য হল। রবিবার ১৬ মে থেকে ৩০ মে, ১৫ দিনের জন্য রাজ্যে লকডাউন জারি থাকবে। স্বাস্থ্য পরিষেবা ও জরুরি পণ্য পরিষেবা সহ বেশ কিছু পরিষেবা চালু রাখা হলেও বন্ধ থাকবে বাকি সব পরিষেবা। বন্ধ থাকবে সরকারি ও বেসরকারি কার্যালয়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, অনাবশ্যক দ্রব্যের দোকান সহ মদের দোকান, রেস্টুরেন্ট, বার, লোকাল ট্রেন, মেট্রো ইত্যাদি। স্বাস্থ্য সংক্রান্ত কোনও জরুরি প্রয়োজন না থাকলে বাড়ির বাইরে বেরোনো যাবে না। রাজ্যে করোনা সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা প্রতিদিন বাড়তে থাকায়, তা নিয়ন্ত্রণের জন্য সরকার এমন কড়া বিধিনিষেধ জারি করল।

উল্লেখ্য গত শুক্রবার রাজ্যে একদিন আক্রান্ত হয়েছেন ২০,৮৪৬ জন। এযাবৎ আক্রান্তের সংখ্যা ১০, ৯৪, ৮০২ জন। মৃত্যু হয়েছে ১২,৯৯৩ জনের।

এদিকে রাজ্যে লকডাউনের খবর শুনেই দূরত্ব বিধি শিকেয় তুলে দলে দলে মানুষ ছুটে যান মদের দোকানে। বিভিন্ন জেলার একাধিক জায়গায় একই ছবি দেখা গিয়েছে।

রাজ্যে একদিকে করোনা অন্যদিকে নজিরবিহীন ভোট পরবর্তী হিংসা। শনিবার নন্দীগ্রামে আক্রান্তদের সঙ্গে সাক্ষাতের পর রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় বলেন, মুখ্যমন্ত্রী ঘুম থেকে উঠুন। আমাকে সাংবিধানিক ক্ষমতা প্রয়োগে বাধ্য করবেন না। রাজ্যপাল আরও বলেন, আজ লক্ষ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত। লক্ষ লক্ষ মানুষ রাজ্য ছেড়ে অন্য রাজ্যে আশ্রয় নিয়েছেন। নিজেকে প্রশ্ন করুন, আপনি কী করছেন ? আমরা অত্যন্ত সংকটের মধ্যে রয়েছি। খুন, ধর্ষণ ও লুটতরাজের ঘটনা প্রতিদিন ঘটছে। আমরা জলন্ত আগ্নেয়গিরির ওপর বসে আছি। একদিকে করোনা অন্যদিকে হিংসা। যা কিনা উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত। এই দুয়ের জেরে বাংলা অত্যন্ত সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ, বিষয়টি নিয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার সময় এসেছে। লক্ষ লক্ষ মানুষ কষ্ট পাচ্ছেন।