বৃহস্পতিবার, ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / শ্রদ্ধাঞ্জলি : হোমেন বড়গোহাঞ্চি

শ্রদ্ধাঞ্জলি : হোমেন বড়গোহাঞ্চি

সাহিত্য অকাদেমি ১৯৭৮ সনে "পিতাপুত্র" উপন্যাসের জন্য তাঁকে পুরস্কার দেয়। অসম উপত্যকা সাহিত্য পুরস্কার, নীলমনি ফুকন ইত্যাদি অনেক সম্মানের পালক তার ভাগ্যে জুটেছে

আশুতোষ দাস

সাহিত্য-সাংবাদিকতায় নিরবিচ্ছিন্ন কাজের মাধ্যমে অসমীয়া সাহিত্যকে বিশ্বের দরবারে সম্মানের সাথে যারা পৌঁছে দিয়েছেন তাদের মধ্যে অন্যতম হোমেন বড়গোহাঞ্চি। তিনি একেধারে কবি,গল্পকার, ঔপন্যাসিক, সমালোচক ছিলেন। তার সাংবাদিকতার বলিষ্ঠ কলাম ও সু লেখার জন্য জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অনেক পুরস্কার পেয়েছেন।
হোমেন বড়গোহাঞ্চি অসমের ঢকুয়াখানায় ৭ই ডিসেম্বরে, ১৯৩২ সনে জন্মগ্রহণ করেন। কটন কলেজ থেকে


পড়াশোনা শেষ করে লেখা ও সাংবাদিকতাকেই তিনি জীবিকা হিসেবে বেছে নেন। তাঁর উল্লেখযোগ্য উপন্যাস “পিতাপুত্র”, “সাউদার পুত্রর নাউ মেলি খায়”, “মৎস্য গন্ধা”, “সুদলা” ইত্যাদি।


সাহিত্য অকাদেমি ১৯৭৮ সনে “পিতাপুত্র” উপন্যাসের জন্য তাঁকে পুরস্কার দেয়। অসম উপত্যকা সাহিত্য পুরস্কার, নীলমনি ফুকন ইত্যাদি অনেক সম্মানের পালক তার ভাগ্যে জুটেছে। প্রবন্ধ গ্রন্থের মাঝে উল্লেখ্য, প্রঞ্জার সাধনা, গদ্যের সাধনা, পাঠকের টোকাবহী, মানুষ হওয়ার গৌরব ইত্যাদি। উল্লেখযোগ্য কবিতা বই এর মধ্যে “হৈমন্তী” ইত্যাদি রয়েছে।
পঞ্চাশ দশক থেকে মৃত্যুর আগে পর্যন্ত সাহিত্যের সবক্ষেত্রেই তার ছিল অবাধ বিচরণ। তাঁর মৃত্যুতে অসমীয়া সাহিত্যের এক নক্ষত্র পতন হলো।আমরা হারালাম এক মানবদরদী বহুপ্রতিভার সৃজনী লেখক কে। তিনি ৮৯ বছর বয়সে জীবনের শেষ ছুটি নিয়ে আজ সকালে চলে গেলেন অমৃতলোকে। কিছুদিন আগে কভিদে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যান কিন্তু আজ তিনি পাকাপাকিভাবেই পাড়ি দেন ওপারে।