রবিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / বর নামতা বলতে না পারায় বিয়ে ভাঙল কনে

বর নামতা বলতে না পারায় বিয়ে ভাঙল কনে

স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পাত্র ও পাত্রীর বাড়ির অভিভাবকরাই দেখাশোনা করে বিয়ে ঠিক করেছিলেন। কিন্তু কনের বাড়ির অভিযোগ, প্রথম থেকেই পাত্রের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে তাঁদের অন্ধকারে রাখা হয়েছিল।

মিঠুলাল চৌধুরী

বর অঙ্ক জানেন কি না, মালাবদলের ঠিক আগের মুহূর্তে যাচাই করে নিতে চেয়েছিলেন কনে। তাই গলায় মালা পরানোর আগে বরকে নামতা বলতে বলেছিলেন । কিন্তু বর নামতা বলতে না পারায় মালা ফেলে দিয়ে কনে মণ্ডপ ছেড়ে বেরিয়ে গেলেন। কনের বক্তব্য, এমন ছেলের সাথে তিনি ঘর করতে পারবেন না। যার অঙ্কের প্রাথমিক জ্ঞানও নেই।
বর চিন্তাও করতে পারেনি, সামান্য অঙ্কের নামতার জন্য তাঁর বিয়ে ভেঙে যেতে পারে। কিন্তু বাস্তবে তেমনটাই ঘটল। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের মাহোবা এলাকায়। রাজকীয় বেশে ঢাক ঢোল বাজিয়ে নৃত্য করতে করতে বরযাত্রী সঙ্গে নিয়ে বর বিয়ে করতে এসেছিলেন। সবই ঠিকঠাক চলছিল, হঠাৎই মালাবদলের আগে কনে – বরকে দুইয়ের ঘরের নামতা জিজ্ঞেস করেন। তাতেই সব উল্টো পাল্টা হয়ে যায়।

স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পাত্র ও পাত্রীর বাড়ির অভিভাবকরাই দেখাশোনা করে বিয়ে ঠিক করেছিলেন। কিন্তু কনের বাড়ির অভিযোগ, প্রথম থেকেই পাত্রের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে তাঁদের অন্ধকারে রাখা হয়েছিল। ফলে স্বাভাবিকভাবেই তাঁরা জালিয়াতির অভিযোগ তুলছেন। পাত্রীর বোন বলেছেন, আমার দিদি যথেষ্ট সাহসী। তাই বিয়ের মণ্ডপেই জানিয়ে দিতে পেরেছে, যে ওই রকম ছেলের সাথে ও বিয়ে করবে না। তবে এরপর আর ঘটনা বেশিদুর গড়ায়নি। গ্রামের মাতব্বরদের মধ্যস্থতায় ঠিক হয়েছে, বিয়ে হবে না। দু’পক্ষই একে অপরকে দেওয়া সমস্ত উপহার ও গয়না ফেরত নিয়ে নিয়েছেন। শেষপর্যন্ত গ্রামীণ সমাজকে উপেক্ষা করে যে ভাবে গ্রামের একটি মেয়ে শিক্ষাগত যোগ্যতা বিচার করে নিজের জীবন সঙ্গী বেছে নিতে চেয়েছে, তাতে অনেকেই মেয়েটির সাহসের তারিফ করছেন।