রবিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / অতিমারি করোনাকালে এবার শিশু কিশোররা মানসিক ভাবে আক্রান্ত

অতিমারি করোনাকালে এবার শিশু কিশোররা মানসিক ভাবে আক্রান্ত

কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের ভাষায় "এ বড়ো সুখের সময় নয়, এ বড়ো আনন্দের সময় নয়।" অনেক জেলায় অতিমারির জন্য প্রাথমিক স্কুল বন্ধ রয়েছে। বাড়িতে কতক্ষণই বা কার্টুন ফিল্ম দেখা যায়! এমতাবস্থায় অভিভাবককেই বাড়িতে এক সুন্দর ও

আশুতোষ দাস

এবারের অতিমারি করোনা ভাইরাস সবচেয়ে বেশি মানসিক ভাবে আক্রান্ত করেছে চপলমতি শিশু কিশোরদেরকে। তাদের স্বাভাবিক গতি কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে। তারা আগের মতো এখন খেলার সঙ্গী পাচ্ছেনা, কঠোর নিয়মের ঘেরাটোপে থাকতে হচ্ছে। এসময় ইতিবাচক ভূমিকা নিয়ে অভিভাবককে তাদের সঙ্গ দিতে হবে নতুবা তারা বিমর্ষ ও মনমরা হয়ে উদ্যোম হারিয়ে ফেলবে। কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের ভাষায় “এ বড়ো সুখের সময় নয়, এ বড়ো আনন্দের সময় নয়।” অনেক জেলায় অতিমারির জন্য প্রাথমিক স্কুল বন্ধ রয়েছে। বাড়িতে কতক্ষণই বা কার্টুন ফিল্ম দেখা যায়! এমতাবস্থায় অভিভাবককেই বাড়িতে এক সুন্দর ও আনন্দময় পরিবেশ গড়ে তুলতে হবে। তাছাড়া যদি অনলাইনে ক্লাসের পঠন লিখন ইত্যাদি যদি থাকে তবে সবকিছু স্বাভাবিক ভাবে অভিভাবককে সঙ্গ দিয়ে তাকে এই মাধ্যমে উপযুক্ত করে তুলতে হবে। সময় বদলে যাচ্ছে আর আমরা বিশ্বায়নের কবলে পড়ে নিজেকে বদলে নিতে বাধ্য হচ্ছি। সৃজনী কাজে যেমন ছবি আঁকা, আবৃত্তি করা, বাড়িতে যেমন খুশি সাজো, ঘরের ভেতর কানামাছি খেলা, মিউজিক্যাল চেয়ার, ক্যারাম, লুডু এসব স্বাস্থ্য বিধি মেনে ছোট পরিসরে খেলা করা পারিবারিক আত্মীয় পরিজন নিয়ে যেটুকু সম্ভব তার দিকে নিবিষ্ট হতে হবে। সেই সঙ্গে অতিমারিতে মাস্ক পরা, সেনিটাইজার ব্যবহার এবং স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে শিশু কিশোরদেরকে সচেতন করে দিতে হবে। নিজে যেমন সচেতন থাকতে হবে ঠিক তেমনি পরিবারের সবাইকে স্বাস্থ্য বিধি সম্পর্কে সচেতন করে দিতে হবে, এই বিপন্ন সময়ে একজন অভিভাবকের এটাই প্রথম ও প্রধান কাজ বলে মনে রাখা উচিত।