মঙ্গলবার, ২৭শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / এক মাসে চারটি মন্দিরে হামলা করিমগঞ্জে, আতঙ্ক

এক মাসে চারটি মন্দিরে হামলা করিমগঞ্জে, আতঙ্ক

নৃসিংহ মন্দিরের ডাকাতির ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে ফের মন্দিরে ডাকাতির ঘটনা ঘটল। এবার ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের ধলছরা পঞ্চায়েতের অধীন শতবর্ষ পুরনো ঐতিহ্যবাহী পেচারপার বালাজি আখড়ায় ।

অরুপ রায়
করিমগঞ্জ, ৬ মে 

নির্বাচনের পর একের পর এক মন্দিরে চুরি-ডাকাতির নামে মন্দিরের পবিত্রতা নষ্ট করার চক্রান্ত কি পরিকল্পিত? এ নিয়ে জনমনে প্রশ্ন উত্থাপিত হয়েছে । এক মাসে চারটি মন্দিরে হামলা বাংলাদেশ কে হার মানিয়ে দেবে । মন্দিরের উপর আঘাত বরদাস্ত করা যাবে না বলে চরম হুমকি দিয়েছে জেলার বিভিন্ন হিন্দু সংগঠন । তাদের অভিযোগ, এসব ঘটনার পেছনে কোন অপশক্তির হাত থাকতে পারে তাই প্রশাসনকে শক্ত হাতে দমন করতে হবে। অন্যতায় মন্দির সুরক্ষার জন্য নিজেদের মাঠে নামতে হবে ।

নৃসিংহ মন্দিরের ডাকাতির ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে ফের মন্দিরে ডাকাতির ঘটনা ঘটল। এবার ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের ধলছরা পঞ্চায়েতের অধীন শতবর্ষ পুরনো ঐতিহ্যবাহী পেচারপার বালাজি আখড়ায় । ডাকাতরা আখড়ার বৈষ্ণবের গলায় ধারালো অস্ত্র লাগিয়ে নিয়ে গেল মন্দিরের স্বর্ণালংকার সহ নগদ অর্থ। তদন্তে গোয়েন্দা কুকুর নিয়ে পুলিশ সুপার তদন্তে নামলেও রহস্য ভেদ করতে ব্যর্থ। গোটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে সীমান্ত এলাকায় চাঞ্চল্য বিরাজ করছে। 

প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, বালাজী আখড়ায়  বুধবার রাতে এক ডাকাতদল হানা দেয়। আখড়ার পু ঘরের দরজা ভেঙ্গে ডাকাত দল প্রবেশ করে। ঘরে ঢুকেই পুজারি শ্যামসুন্দর বৈষ্ণব ও পুজারিনি   লক্ষ্মী প্রিয়া দেবী গলায় দারালো দা ধরে মুল মন্দিরের চাবি নিয়ে নেয়। এরপর তারা  প্রায় আধা ঘন্টা ধরে ডাকাতি চালিয়ে মন্দিরের স্বর্ণালঙ্কার সহ নগদ অর্থ হাতিয়ে নিয়ে গা ঢাকা দেয়। ডাকাতরা গা ঢাকা দেওয়ার পর পুজারি চিৎকার আরম্ভ করলে গ্রামবাসীরা জড়ো হন।

আখড়া পরিচালন সমিতির সভাপতি রজত দাস, রামতনু দাস উপস্থিত হয়ে বারইগ্রাম ওয়াচ পোষ্টে খবর দিলে পুলিশ উপস্থিত তদন্ত আরম্ভ করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্হলে ছুটে আসেন পাথারকান্দি থানার ওসিও। গ্রামবাসিদের চাপে শেষ পর্যন্ত গোয়েন্দা কুকুর নিয়ে তদন্তে মাঠে নামেন করিমগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মায়াঙ্ক কুমার। পুলিশ সুপার জানান, তদন্ত অব্যাহত আছে অতি শিঘ্রই ডাকাতদের করায়ত্ত করা হবে। এদিকে বিজেপি নেত্রি শিপ্রা গুন এবং প্রাক্তন মন্ত্রী সিদ্দেক আহমদ ঘটনার তিব্র নিন্দা জানিয়ে দোষিদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানান।