শনিবার, ২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / বঙ্গে ভোট পরবর্তী হিংসায় ১২ জনের মৃত্যু, অসমে আশ্রয় নিলেন ৪০০

বঙ্গে ভোট পরবর্তী হিংসায় ১২ জনের মৃত্যু, অসমে আশ্রয় নিলেন ৪০০

বঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ অভিযোগ করেন, ভোটের ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর গত ২৪ ঘন্টায় ৬ জন বিজেপি নেতা - কর্মী রাজনৈতিক হিংসার বলি হয়েছেন। তাঁর আরও অভিযোগ পুলিশ দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে শুধু দেখছে। কিন্তু কোনও

মিঠুলাল চৌধুরী

পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ হতেই ফের শুরু হয়েছে রাজনৈতিক হিংসা। বুধবার গোটা দেশজুড়ে বিজেপি কর্মীরা ধর্না দেবেন। মঙ্গলবার কলকাতায় এসে বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা ভোট পরবর্তী হিংসায় আক্রান্ত পরিবারদের সাথে দেখা করেন।
প্রসঙ্গত, নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসছে তৃণমূলি সন্ত্রাসের খবর। অভিযোগ উঠছে, বিভিন্ন জায়গায় বিজয় মিছিল বার করে বাড়ি বাড়ি ঢুকে বিজেপি কর্মীদের উপর হামলা চালানো হচ্ছে। অভিযোগের তির তৃণমূল আশ্রিত গুন্ডাদের বিরুদ্ধে। বিজেপির অভিযোগ, কর্মীদের মারধর করা হচ্ছে, বাড়ি ভাঙচুর ও আগুন লাগানো হচ্ছে। কোথাও খুন করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশন মিছিলকারীদের গ্রেফতার করতে এফআইআর দায়ের করার নির্দেশ দিয়েছে। ভোটের ফল প্রকাশের পর হলদিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। হলদিয়ার হাসপাতাল মোড়ে তাঁর গাড়ি পৌঁছতেই শুরু হয় ইটবৃষ্টি। ঘটনার জেরে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। এরপর গোটা এলাকার দখল নেয় কেন্দ্রীয় বাহিনী।

বঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ অভিযোগ করেন, ভোটের ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর গত ২৪ ঘন্টায় ৬ জন বিজেপি নেতা – কর্মী রাজনৈতিক হিংসার বলি হয়েছেন। তাঁর আরও অভিযোগ পুলিশ দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে শুধু দেখছে। কিন্তু কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছে না।
এদিকে নির্বাচনী পরবর্তী সংঘর্ষের ঘটনা নিয়ে রাজ্য পুলিশের ডিজি ও কলকাতা পুলিশ কমিশনারকে তলব করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। কেন ফলপ্রকাশের পর রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে সংঘর্ষ, ভাঙচুর, লুটপাট হচ্ছে সেটা রাজ্যপাল তাদের কাছে জানতে চান। সেইসঙ্গে একই কারণে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিবকেও রাজ্যপাল তাঁর বাসভবনে ডেকে পাঠান। এবং পরিস্থিতি শান্ত করতে সব রকমের ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেন।
বুধবার তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ গ্রহণ করবেন মমতা ব্যানার্জি। ৬মে জয়ী বিধায়করা শপথ নেবেন।

এদিকে অসমের মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা টুইট করে দুঃখ প্রকাশ করে জানিয়েছেন বিজেপি কে ভোট না দেওয়ার অভিযোগে মানুষকে অযথা হয়রানি করা হচ্ছে। তিনি বলেছেন, কম করেও ৩০০/৪০০ উত্তর বঙ্গের মানুষ অসমের সীমান্তবর্তী কয়েকটি জেলায় আশ্রয় নিয়েছেন ।