বৃহস্পতিবার, ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / সাংবাদিক দ্বিজেন্দ্রলাল দাসের গল্প সংকলন “জীবন যুদ্ধ” প্রকাশিত

সাংবাদিক দ্বিজেন্দ্রলাল দাসের গল্প সংকলন “জীবন যুদ্ধ” প্রকাশিত

অনুষ্ঠানে ভাষণ পেশ করতে গিয়ে গল্প লেখার প্রেক্ষাপটের কথা উল্লেখ করেন দ্বিজেন্দ্রলাল দাস। তিনি বলেন, ‘দাদুর লেখা স্রোতের আবর্তে উপন্যাস (অপ্রকাশিত) আমার লেখার অনুপ্রেরনা। স্কুল-কলেজে পড়াকালীন একটু আধটু কবিতা গল্প লিখতাম। এরপর সাংবাদিকতায় আসার পর

শতানন্দ ভট্টাচার্য

পেশায় তিনি একজন ক্রীড়া সাংবাদিক। খেলার খবর লেখার পাশাপাশি নীরবে করে চলছেন সাহিত্য চর্চা। এক এক করে বেশ কয়েকটি গল্প লিখেছেন ক্রীড়া সাংবাদিক দ্বিজেন্দ্রলাল দাস। সে সব গল্প দুই মলাটে আবদ্ধ করে প্রকাশ করলেন প্রথম গল্প সংকলন ‘জীবন যুদ্ধ’।শনিবার বিকেলে শিলচর শহরের ইটখোলা অ্যাথলেটিক ক্লাবে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে গল্প সংকলনের আবরন উন্মোচন করলেন কবি সুজিত দাস, কবি অধ্যাপক রূপরাজ ভট্টাচার্য, কবি সাংবাদিক রত্নদ্বীপ দেব, শিলচর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি বাবুল হোড়, অনুষ্ঠানের সভাপতি সাংবাদিক উত্তম সাহা।

অনুষ্ঠানে ভাষণ পেশ করতে গিয়ে গল্প লেখার প্রেক্ষাপটের কথা উল্লেখ করেন দ্বিজেন্দ্রলাল দাস। তিনি বলেন, ‘দাদুর লেখা স্রোতের আবর্তে উপন্যাস (অপ্রকাশিত) আমার লেখার অনুপ্রেরনা। স্কুল-কলেজে পড়াকালীন একটু আধটু কবিতা গল্প লিখতাম। এরপর সাংবাদিকতায় আসার পর কবিতা আর গল্প লেখা হয়ে উঠেনি। কিন্তু কবিতা , গল্পে ফিরে আসার তাগিদ অনুভব করতাম। সেখান থেকেই আবার গল্প লেখা শুরু’।

কবি সুজিত দাস বলেন, ‘ লেখক দ্বিজেন্দ্রলাল দাস নিয়মিত গল্প না লিখলেও তার লেখার মধ্যে পাওয়া যায় গল্পের আঁচ । সে প্রতিবেদনই হোক আর ফেসবুক পোস্টই হোক। তার এই জাত্রা আরও সুন্দর হোক, তাই কামনা করি।‘

কবি রূপরাজ ভট্টাচার্য বলেন , ‘ সাংবাদিকতা একটি দুরূহ পেশা। এই পেশায় থেকেও যে দ্বিজেন্দ্রলাল দাস সাহিত্য চর্চা করছেন, সেটা অনেক বড় কথা। খবর লিখলেও তার লেখার মধ্যে সাহিত্যের ছোঁয়া রয়ে গেছে। সেটাকে তিনি অনেক যত্ন করে রেখেছেন, তার প্রশংসা করতেই হয়’।

ডি এস এ সভাপতি বাবুল হোড় বলেন, ‘ লেখকের এটা তিন নম্বর বই । এর আগের দুটো খেলার উপরে। দুটিই পড়েছি । ভালো লেগেছে। বিশ্বাস, এটাও ভালো লাগবে’।

কবি রত্নদ্বীপ দেব বইয়ের উপর আলকপাত করেন। বেশ কয়েকটি গল্পের বিশ্লেষণ করেন তিনি’।

অনুষ্ঠান পৌরোহিত্য করেন সাংবাদিক উত্তম সাহা। শুরুতে রবীন্দ্র সঙ্গীত পরিবেশন করেন লেখক-পুত্র দিবায়ন দাস। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন রাহুল দেব।