শনিবার, ২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / অসমে বিধানসভার দ্বিতীয় দফার ভোট সম্পন্ন

অসমে বিধানসভার দ্বিতীয় দফার ভোট সম্পন্ন

দ্বিতীয় দফায় জনগণের মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে ব্যপক উৎসাহ ছিল। বিশেষ করে মহিলা ও যুবপ্রজন্মের মধ্যে। দ্বিতীয় দফায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা প্রার্থীদের মধ্যে চারজন মন্ত্রীও রয়েছেন।

নিউজফাইল সংবাদ
গুয়াহাটি, এপ্রিল ১,

বৃহস্পতিবার রাজ্যের ১৩টি জেলার ৩৯টি আসনে মোট ৭৩,৪৪,৬৩১ ভোটার ৩৪৫ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ করেছেন। বরাক উপত্যকার ১৫ টি ও রাজ্যের অন্যান্য ২৪ টি আসনের মধ্যে মোট ৩৯ টি কেন্দ্রে বিক্ষিপ্ত কিছু ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবেই শেষ হয়েছে। কয়েকটি জায়গায় গুলিচালনা, ইভিএম বিকল, বিক্ষিপ্ত হিংসা ও উত্তেজনার ঘটনা ঘটলেও দ্বিতীয় দফায় ভোট সামগ্রিকভাবে শান্তিতেই শেষ হয়েছে। আগামী ৬ এপ্রিল তৃতীয় ও শেষ দফার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে প্রথম দফায় ২৭ মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

আজ ভোটার হার ছিল প্রায় ৭৮ শতাংশ। কিছু আসনে ৮২ শতাংশ ভোট পড়ার খবরও এসেছে।

দ্বিতীয় দফায় জনগণের মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে ব্যপক উৎসাহ ছিল। বিশেষ করে মহিলা ও যুবপ্রজন্মের মধ্যে।
দ্বিতীয় দফায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা প্রার্থীদের মধ্যে চারজন মন্ত্রীও রয়েছেন।

দক্ষিণ অসমের বরাক উপত্যকার কাছাড়, করিমগঞ্জ ও হাইলাকান্দি জেলায় ভোট নিয়ে মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ পরিলক্ষিত হয়।অনেক ভোট কেন্দ্রকে বিভিন্নভাবে সাজানো হয়। তৈরি করা হয় মডেল ভোট গ্রহণ কেন্দ্রও। এছাড়াও ছিল কিছু মহিলা পরিচালিত ভোটগ্রহণ কেন্দ্র। হাইলাকান্দিতে রেকর্ড সংখ্যক (৮২.৩৩%) ভোট পড়ে বলে জানিয়েছেন জেলাশাসক মেঘনিধি দাহাল। তিনি সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন এর কৃতিত্ব সবার, বিশেষ করা যারা সচেতনতা জাগাতে কাজ করেছেন।

কোনো ঘটনা ছাড়াই অসমের একমাত্র শৈল শহর ডিমা হাসাও জেলায় ভোটগ্রহণ পর্ব সমাপ্ত হয়েছে। এই জেলার সদর হচ্ছে হাফলং। এই জেলাকে “মিনি ইন্ডিয়া” বলা হয়। কারণ এখানে ১৩ টি উপজাতি এবং ৬ টি অ-উপজাতির বসবাস। অন্যান্য জেলা বা পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন ঘিরে যে সন্ত্রাসের আবহ এখানে ছিলো না আজ। এখানকার মানুষ প্রমাণ করে দেখিয়ে দিলেন ভোটকে একটা “উৎসব” হিসেবে বেছে নিয়েছেন তারা। এদিন হাসি মুখে পাহাড়ের মানুষ নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করলেন। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে তুমুল বৃষ্টি গোটা জেলাতে। ফলে পোলিং সেন্টার প্রায় ফাঁকা ছিল। বেলা সাড়ে এগারোটার পর বৃষ্টি থামে। তখন ভোটারদের লাইন পড়ে পোলিং সেন্টারগুলোতে। একে একে ভোট দিলেন ১৬ নং হাফলং বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রাথী নন্দিতা গোড়লোসা, কংগ্রেসের নির্মল লাংথাসা, নির্দল খানদান দাওলাগুপু I


উত্তর কাছাড় পার্বত্য পরিষদের সিইএম দেবলাল গাড়লোসা, প্রাক্তন সিইএম দেবজিত থাওসেন, পার্বত্য পরিষদের মাহুর কেন্দ্রের মেম্বার অব অটোনমাস কাউন্সিল (এমএসি) রাহুল নাইডিং প্রমুখ। উল্লেখ্য, ডিমা হাসাও জেলায় ভোট পড়েছে ৭৪ শতাংশ।

রাজ্যের অন্য দুই হিল জেলা কার্বি আংলং ও পশ্চিম কার্বি আংলং এ শান্তিপূর্ণভাবে ভোট হয়েছে।

(মিঠুলাল চৌধুরী, শঙ্করী চৌধুরী, দেবোপম পুরকায়স্থ, অরূপ রায় ও ইন্দ্রনীল দত্তের সংযোজন )