শনিবার, ৩১শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / ইনকাম ট্যাক্স ম্যানেজ করার ১০ টি টিপস্

ইনকাম ট্যাক্স ম্যানেজ করার ১০ টি টিপস্

বিশেষ করে যারা বেতনভোগী এবং যাদের জীবন বেতনের উপর নির্ভরশীল তাদের ক্ষেত্রে ট্যাক্সের প্ল্যানিং করা খুব বেশি জরুরী

অনুরণ ভট্টাচার্য

করোনা পরিস্থিতি মানুষকে অনেক কিছু শিখিয়ে দিয়েছে। বিশেষ করে যেভাবে মানুষের দৈনন্দিন জীবন এবং সাধারণ মানুষের আয়ের ব্যবস্থা প্রভাবিত হয়েছে, এই পরিস্থিতি মানুষকে শিখিয়ে দিয়েছে অর্থের পরিচালনা কিভাবে করা উচিত। অতএব বর্তমান পরিস্থিতিতে সারা জীবনের অর্থ বিনিয়োগ বা খরচ এর অসাবধানতা জীবনকে অধঃপতনের দিকে নিয়ে যেতে পারে তাই এর সাথে টেক্স প্লান্নিংও অনেক জরুরী।

বিশেষ করে যারা বেতনভোগী এবং যাদের জীবন বেতনের উপর নির্ভরশীল তাদের ক্ষেত্রে ট্যাক্সের প্ল্যানিং করা খুব বেশি জরুরী। আয়কর থেকে বাঁচার অনেক রাস্তা আছে শুধু ট্যাক্স থেকে উদ্ধারই পাবেন না তার সাথে সাথে ভালো নিবেশ এর মাধ্যমে অনেকটা আর্থিক আয়ের সম্মুখীন হবেন। তবে চলুন জেনে নেওয়া যাক নিচের দশটি টিপস্।

১. ইপিএফ এ জমা রাখুন : এপিএস একটি ভাল মাধ্যম হতে পারে টেক্স থেকে বাঁচার। এই ফান্ডে নিয়োগকারী এবং কর্মচারী দুজনই নিবেশ করে থাকেন। এখানে কর্মচারী সুদ এর মাধ্যমে কিছু উপার্জন করে। এই নিয়মাবলির মাধ্যমে নির্ধারিত আয় করে অনেক ছাড় পাওয়া যায়।

২. পিপিএফ এ জমা রাখুন : পাবলিক প্রফিডেন্ট ফান্ড টেস্ট বাঁচানোর জন্য একটি সুন্দর বিকল্প। এই ফান্ডের মাধ্যমে রিটায়ারমেন্ট এর পরে কিছু পরিমাণ।

৩. ট্যাক্স এবং নন ট্যাক্স ইনকাম বুঝুন: এই তথ্য অনুযায়ী জানা প্রয়োজন যে আপনার নিবেশ করা কিংবা আপনি যদি বেতনভোগী কর্মচারী হন তবে আপনার জমা রাখা অর্থের কত শতাংশ এবং কত ভাগ আপনার ট্যাক্স দিতে হচ্ছে । সে বিষয়ে দৃষ্টিপাত অবশ্যই করা উচিত জানবার জন্য অফিসের এইচ আর টিমের সঙ্গে যোগাযোগ করে বুঝে শুনে নিয়োগ করুন।

৪. ঘর ভাড়ার অ্যালাউন্স ক্লেম করুন : সরকার ঘর ভাড়া বা সরকার প্রদত্ত দেওয়া অর্থ রাশি তে অনেক ছাড় দিয়ে থাকে। এক্ষেত্রে আপনারা অবশ্যই ক্লেম করুন। যদিও এর রাশি মূল্যের উপরও ফিল্ম করার এক সীমা থাকে। আপনি এইচআর ডিপার্টমেন্ট সঙ্গে যোগাযোগ করে নিতে পারেন।

৫. ইনকাম ট্যাক্স ডিপার্টমেন্ট এর বিভিন্ন সেকশন কি বুঝুন: টেক্স বাঁচানোর জন্য প্রথমে তার বিভিন্ন মাধ্যম কি বুঝতে হবে। টেক্স বাঁচানোর নিবেশের মধ্যে 80 C খুব লোকপ্রিয়। এর সাথে 80D, 80E, 80G ইত্যাদি সিস্টেম ও অনেক লাভ দায়ক।

৬. অনেক ক্ষেত্রে খরচ বাবদ ও পাওয়া যায় ট্যাক্সের ছাড় : আপনার জীবনে দৈনন্দিন কিছু এমনো খরচ আছে যেখানে আপনার ট্যাক্স দিতে হয় না যেমন আপনার বাচ্চার টিউশন, বীমা প্রিমিয়াম, ডোনেশন এর মতো খরচ এ থাকেনা কোন ট্যাক্স।

৭. ছোটখাটো নিবেশ এর মাধ্যমে হয়ে থাকে বড় ফায়দা : কিছু নিবেশ নিজের পয়সায় অবশ্যই করুন যেখানে টেক্স ছাড় পাওয়া যায়। এর জন্য ছোট বিনিয়োগ যেমন 1000 এর এস আই পি শুরু করতে পারেন। পোস্ট অফিস ফিক্সড ডিপোজিট হোম লোন এ দেওয়া ইএমআই এর খরচ আদি দেখিয়ে নিতে পারেন আয় করে বড় ছাড়।

৮. অ্যালাউন্স এবং কুপন এর বিষয়ে জেনে নিন: সেলারি তে পাওয়া অ্যালাউন্স বা কুপনে কোন নির্ধারিত টেক্স দিতে হয় না। এ বিষয়ে আপনাদের জানা অত্যন্ত জরুরী। অতএব যদি আপনাদের কারো মাসিক বেতনের সঙ্গে কুপন কিংবা অ্যালাউন্স জড়িত থাকে তবে এই এলাউন্স বা কুপন আপনাদের ১%ও ট্যাক্স এর হাত থেকে বাঁচাতে ফলপ্রসূ হবে।

৯. লিভ ট্রাভেল অ্যালাউন্স : এল টি এ ট্যাক্স এর অনেক ছাড় পাওয়া যায়। যদিও ট্রিপের সময় হওয়া খরচের পরিমাণ দেখিয়ে আপনি ট্যাক্সে ছাড় পেতে পারবেন না।

১০. বাকি থাকা ছুটির টাকা নিলেও ট্যাক্স ছাড় পাওয়া যাবে: ছুটি বাকি থাকলে সেই ছুটির বিনিময়ে আপনি যদি টাকা নিয়ে থাকেন তবে সেই টাকার উপরে আপনার কোন ট্যাক্স দিতে হবে না। এ বিষয়ে বিশদ জানার জন্য আপনি আপনার ইনভেস্টর এর সাথে অবশ্যই যোগাযোগ করুন।