বৃহস্পতিবার, ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / হোয়াটসঅ্যাপের আপডেট নিয়ে তদন্ত কমিশন!

হোয়াটসঅ্যাপের আপডেট নিয়ে তদন্ত কমিশন!

এই নিরাপত্তা বিধি গ্রহণ না করার কোনও সুযোগ দেওয়া হয়নি, যেটি মূল আপত্তির কারণ।

শঙ্করী চৌধুরী

হোয়াটসঅ্যাপের নতুন আপডেট নিয়ে আগেই আপত্তি জানিয়েছিল কেন্দ্রিয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রক। এবার সেই আপত্তির ভিত্তিতেই স্বতঃপ্রণোদিত তদন্ত শুরু করতে চলেছে কম্পিটিশন কমিশন অব ইন্ডিয়া। কমিশনের তরফ থেকে বলা হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপের নতুন নিরাপত্তা বিধি (প্রাইভেসি পলিসি) সাধারণ গ্রাহক নিজের স্বার্থে ব্যবহার করছে ও অন্য ক্ষেত্রে গ্রাহকের অংশগ্রহণের পথ বন্ধ করছে। এই অভিযোগের ভিত্তিতেই তদন্ত করা হবে। কমিশনের ডিরেক্টর জেনারেলকে তদন্তের রিপোর্ট আগামী ৬০ দিনের মধ্যে জমা দিতে বলা হয়েছে বলে জানা গেছে। হোয়াটসঅ্যাপের নিরাপত্তা বিধিতে পরিবর্তনের সময় গ্রাহকদের কাছে শর্ত আসে যে তাদের কিছু ব্যক্তিগত তথ্য ফেসবুকের সঙ্গে ভাগ করে নিতে হবে। নতুন নিরাপত্তা বিধি গ্রহণ না করার কোনও সুযোগ দেওয়া ছিলোনা গ্রাহকদের। পুরো বিষয়টি নিয়ে আপত্তি তুলেছিল কেন্দ্রিয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রক। এরপরেই তদন্তের সিদ্ধান্ত নেয় কমিশন। কমিশনের তরফে আরো জানানো হয় যে এই নিরাপত্তা বিধি গ্রহণ না করার কোনও সুযোগ দেওয়া হয়নি, যেটি মূল আপত্তির কারণ। হোয়াটসঅ্যাপ ভারতীয় বাজারে তার একচেটিয়া উপস্থিতির সুযোগ নিয়ে এই সিদ্ধান্ত গ্রাহকদের উপর চাপিয়ে দিয়েছে। কমিশনের তরফে জানা গেছে, ভারতীয় বাজারে কোনও প্রতিযোগিতার মুখে না পড়ার জন্যে হোয়াটসঅ্যাপ তার গ্রাহকদের নিরাপত্তা বিধিকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছে না। এজন্যে এই শর্ত গ্রহণ না করারও কোন সুযোগ দেননি তারা। এই প্রেক্ষিতে উঠে এসেছে আরো একটি বিষয়। কমিশনের প্রশ্ন, ফেসবুকের সঙ্গে গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্য ভাগ করে নেওয়ার বিষয়ে কী কী নিরাপত্তা বিধি অবলম্বন করা হচ্ছে, তা স্পষ্ট করেনি হোয়াটসঅ্যাপ। পাশাপাশি এই তথ্য ভাগ করে নেওয়ার বিষয়টি গ্রাহকরা বাধ্য হয়ে করছেন, না ইচ্ছা থেকে করছেন তা বুঝার উপায় নেই কারণ এই আপডেট এড়িয়ে যাওয়ার কোনও সুযোগই দেয়নি সংস্থা। হোয়াটসঅ্যাপের মুখপাত্র জানান, কমিশনের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনায় আমরা আগ্রহী। হোয়াটসঅ্যাপ মানুষের নিরাপত্তার বিষয়টি রক্ষা করতে সর্বদা বদ্ধপরিকর। নতুন বিজনেস ফিচার কিভাবে কাজ করে সে বিষয়েও গ্রাহকদের স্পষ্ট সব তথ্য দিতে আগ্রহী বলে জানান হোয়াটসঅ্যাপের মুখপাত্র।