বৃহস্পতিবার, ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশ বাড়াতে আজমলকে মুখ্যমন্ত্রী চাইছে কংগ্রেস, অমিত শাহর কটাক্ষ

বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশ বাড়াতে আজমলকে মুখ্যমন্ত্রী চাইছে কংগ্রেস, অমিত শাহর কটাক্ষ

কংগ্রেস এবং আজমলরা অসমে অনুপ্রবেশকে প্রশ্রয় দেওয়ার পাশাপাশি নেশাকেও প্রশ্রয় দিচ্ছে ।

অরুপ রায়,
করিমগঞ্জ, মার্চ ২৭
,

অসমে বিজেপি সরকার আসবে বরাক উপত্যকার উন্নয়ন হবে । আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে বরাক উপত্যকায় সচিবালয়ের সব বিভাগ হবে। বরাকে বেশ কিছু শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার বিশেষ পরিকল্পনা নেওয়া হবে । দেশ বিদেশের কিছু কোম্পানি নিজেদের শিল্পের ভান্ডার গড়ে তুলবে ফলে এলাকার অর্থনৈতিক উন্নয়ন ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাবে । বরাককে ইকোনোমিক জোন হিসেবে গড়ে তোলা হবে ফলে উত্তর পূর্ব রাজ্যের সঙ্গে বাংলাদেশ, মায়ারমার দিয়ে ব্যবসার কেন্দ্র বিন্দু হবে। তাই বরাকের সার্বিক উন্নয়নের জন্য বিজেপি মিত্র জোটের প্রার্থীদের জয়ী করে দিসপুর পাঠানোর আহ্বান জানান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ । তিনি দক্ষিণ অসমের শিলচর ও করিমগঞ্জে নির্বাচনী জনসভায় ভাষণ দিয়ে এধরনের প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি দেন।

কংগ্রেসের সঙ্গে হাত মিলিয়ে বদরুদ্দিন আজমল অসমের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন, আপনারা সেই স্বপ্ন কখনো সফল হতে দেবেন না কারণ বদরুদ্দিন মুখ্যমন্ত্রী হলে বাংলাদেশি অনুপ্রবেশ আমাদের দেশে বাড়বে । যদি তারা গণহারে প্রবেশ করে তাহলে দেশের শান্তি শৃঙ্খলা, চাকরি ব্যবসা সব কিছুই দখল করে নেবে তাই তাদেরকে আমরা ভারতে প্রবেশ করতে দেব না আর বদরুদ্দিন কে মুখমন্ত্রী করবো না । তিনি  কংগ্রেস এবং আজমলকে চাঁছাছোলা ভাষায় সমালোচনাও করলেন। তিনি বলেন, নানা জাতি ধর্ম ভাষার সংমিশ্রণে যেমন ভারতবর্ষ . তেমন প্রতিচ্ছবি পাথারকান্দির । লঙ্গাই নদীর দু ধারের ধানক্ষেতের দৃশ্য দেখে আবেগিক অমিত বলেন, এই এলাকার কৃষকদের কথা চিন্তা করেই পাথারকান্দিতে একটি মেগা ভূ – পার্ক গড়ে তোলা হবে যাতে কৃষকরা তাদের উৎপাদিত সামগ্রী সহজে বাজারজাত করতে পারেন ।  

 কংগ্রেস এবং আজমলরা অসমে অনুপ্রবেশকে প্রশ্রয় দেওয়ার পাশাপাশি নেশাকেও  প্রশ্রয় দিচ্ছে । তাই নেশার কারবার বন্ধ করার জন্য  আগামীদিনে নার্কোটিকের একটি বিশেষ বিভাগও খোলা হবে বরাকে । অপরাধ দমনেও পুলিশকে আরো শক্তিশালী করে তোলা হবে বলে আশ্বাস দেন তিনি ।

তিনি কংগ্রেসকে এক হাত নিয়ে বলেন, কংগ্রেস তো কোনোদিন অসমের উন্নয়ন চায়নি ।  ওরা জাতি ধর্মের নামে হিংসা ছড়িয়ে ক্ষমতায় টিকে থাকতে জানে । বাঙালিদের অসমিয়ার বিরুদ্ধে, বরাককে ব্রহ্মপুত্রের বিরুদ্ধে ঝগড়া লাগিয়ে রাখাই  ওদের অভ্যেস । ব্রহ্মপুত্র উপত্যকায় গিয়ে কংগ্রেস নেতারা সিএএর বিরোধিতা করে থাকেন আর বরাক উপত্যকায় এলে কা নিয়ে মৌন থাকেন ।  এখন তো কংগ্রেস বদরুদ্দিন আজমলের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে । এখন কংগ্রেসকে ভোট দেওয়া মানেই বদরুদ্দিন আজমলকে মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে বসানোর শামিল  এই মন্তব্য করে তিনি রাহুল -প্রিয়াঙ্কারও সমালোচনা করেন । বলেন, অসমের চা বাগানে এখনো পাতা ফোটে নি আর সেলফি তুলতে বাগানে ঘুরে বেড়াচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা । যে দল আজমলের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে সেই দল কখনোই অসমের নিরাপত্তা সুরক্ষা দিতে পারবে না ।