মঙ্গলবার, ২৭শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / বি এস এফের গুলিতে নিহত বাংলাদেশী গরুচোর

বি এস এফের গুলিতে নিহত বাংলাদেশী গরুচোর

মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কদমতলা হাসপাতালের মর্গে নিয়ে আসা হয়েছে। জানা গেছে ঘটনাস্থল থেকে বাংলাদেশের ফুলতলি বিজিবি ক্যাম্পের দূরত্ব মাত্র ১১০ মিটার।এই সিমান্ত এলাকায় বাংলাদেশী গরু চোর সহ পাচারকারীদের উৎপাত লেগে থাকে।

অরুপ রায়,
করিমগঞ্জ, মার্চ ২০,

বিএসএফের গুলিতে নিহত হল বাংলাদেশী গরু চোর। ঘটনাটি সংগঠিত হয়েছে ত্রিপুরার কদমতলা থানা এলাকার ইয়াকুব নগরের বকবকি সিমান্তে। ইন্দো-বাংলা সিমান্তের পিলার নম্বর ১৮২২ থেকে ১৮২৪ এর মধ্যে শনিবার ভোর রাতে একদল বাংলাদেশী গরু পাচারকারী তারের বেড়া কেটে ভারতীয় সীমান্তে প্রবেশ করে বাংলাদেশে গরু চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় বি এস এফের জওয়ানরা দেখতে পায় এবং পিছু করে। পাচারকারীরা তাদের উপর হামলা চালায়। তাতে এক বিএসএফ জওয়ান আহতও হয়। পরিস্থিতি বেসামাল দেখে বিএসএফ গুলি চালালে এক পাচারকারী ঘটনাস্থলেই নিহত হয়।পরে খবর পেয়ে কদমতলা থানার ওসি কৃষ্ণধন সরকারসহ পুলিশ বাহিনী ছুটে যায়। জানা গেছে নিহত পাচারকারীর নাম বাপ্পা মিঞা (৩৫)। ওর বাড়ি বাংলাদেশের জুড়ি থানার পুর্ব বাতুলি গ্ৰামে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কদমতলা হাসপাতালের মর্গে নিয়ে আসা হয়েছে। জানা গেছে ঘটনাস্থল থেকে বাংলাদেশের ফুলতলি বিজিবি ক্যাম্পের দূরত্ব মাত্র ১১০ মিটার।এই সিমান্ত এলাকায় বাংলাদেশী গরু চোর সহ পাচারকারীদের উৎপাত লেগে থাকে। প্রায় সময় কাটাতার কেটে ভারতীয় সীমান্ত থেকে গরু নিয়ে যায় পাচারকারীরা। অপরদিকে ময়নাতদন্ত শেষে উভয় দেশের বাহিনীর ফ্ল্যাগ মিটিং এর মাধ্যমে মৃতদেহ হস্তান্তর হতে পারে। ঘটনাস্থলে জেলা পুলিশ সুপার সহ বিএসএফের উচ্চ আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। এঘটনায় গোটা সিমান্ত এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।