শনিবার, ৩১শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / বোরখায় নিষেধাজ্ঞা শ্রীলঙ্কায়, বন্ধ হচ্ছে মাদ্রাসাও

বোরখায় নিষেধাজ্ঞা শ্রীলঙ্কায়, বন্ধ হচ্ছে মাদ্রাসাও

মন্ত্রী সরথ বীরসেকেরা আরো জানান যে, হাজারো মাদ্রাসা বন্ধ করার পরিকল্পনা নিয়েছে শ্রীলঙ্কা সরকার, কারণ জাতীয় শিক্ষানীতি লংঘন করেছে এই ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো।

অনুরণ ভট্টাচার্য

প্রতিবেশী দেশ শ্রীলংকায় বোরখা পরিধানে নিষেধাজ্ঞা জারি করার সাথে সাথে মাদ্রাসাও বন্ধ করার পরিকল্পনা হচ্ছে।

সরকার নিতে চলেছে এক বিরাট ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত। এবার থেকে শ্রীলঙ্কায় নিষিদ্ধ হতে চলেছে বোরখা পরিধান। শনিবার শ্রীলংকার জনসুরক্ষা মন্ত্রী সরথ বীরসেকেরা জানান, সে দেশে মুসলিম মহিলাদের মুখমণ্ডল ঢাকা পোশাক নিষিদ্ধ করতে ইতিমধ্যে তোড়জোড় শুরু হয়েছে, কাগজপত্রে মন্ত্রীর সই-সাবুদও প্রায় শেষ। শ্রীলংকার মন্ত্রিসভার অনুমোদন মিললেই বোরখা পরা নিষিদ্ধ করা যাবে। জাতীয় সুরক্ষার স্বার্থেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়।
শ্রীলঙ্কার বাসিন্দাদের একাংশদের মত অনু্যায়ী অতীতে শ্রীলংকার মুসলিম মহিলারা কখনো বোরখা পরতেন না। এটা ধর্মীয় গোঁড়ামির প্রতীক, যা বর্তমানেও দেখা যাচ্ছে। তিনি বলেন, “আমরা নিশ্চিতভাবেই এটা নিষিদ্ধ করতে চলেছি”।

অতীতের দিকে চোখ ফেরালে দেখা যায় ২০১৯ সনে ইস্টার সানডেতে ধারাবাহিক বিস্ফোরণে সাময়িকভাবে সেদেশে বোরখা নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। চার্চ ও হোটেলেও বিস্ফোরণ ঘটেছিল সে বছর। ইসলামী জঙ্গি হামলার ফলশ্রুতিতে ২৫০ এরও বেশি মানুষকে প্রাণ হারাতে হয়েছিল । তাছাড়া প্রায় ৫০০ জন মানুষ আহত হয়েছিলেন। সেসময় একটি সন্ত্রাসবাদি দল এই হামলার দায় স্বীকার করেছিল বলেও জানা গিয়েছিল।

মন্ত্রী সরথ বীরসেকেরা আরো জানান যে, হাজারো মাদ্রাসা বন্ধ করার পরিকল্পনা নিয়েছে শ্রীলঙ্কা সরকার, কারণ জাতীয় শিক্ষানীতি লংঘন করেছে এই ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো। শ্রীলংকা শিক্ষানীতির অনুসারে যে কেউ নিজের স্কুল খুলে বাচ্চাদের যা কিছু শেখাতে পারেনা। প্রসঙ্গত গতবছর করোনা ভাইরাসে মৃত রোগীদের জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে মরদেহগুলো দাহ করার সিদ্ধান্ত নেয় শ্রীলঙ্কা সরকার। এই সিদ্ধান্তে মুসলিম নাগরিক মহলে চরম ক্ষোভের পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়, যার জন্য রাষ্ট্রসঙ্ঘে সমালোচনার মুখেও পড়তে হয়েছিল সরকারকে ।