বৃহস্পতিবার, ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / অঞ্চল  / অসম  / করিমগঞ্জে পানীয় জলের সঙ্কট, ক্ষোভ

করিমগঞ্জে পানীয় জলের সঙ্কট, ক্ষোভ

করিমগঞ্জ জেলায় জল সরবরাহের জন্য প্রকল্প আছে কিন্তু মানুষ জল পাচ্ছেনা । করিমগঞ্জের গ্রামে শতকরা ৯০ শতাংশ প্রকল্পই বন্ধ আছে পরিচর্যা এবং দেখভালের অভাবে ।

অরুপ রায় , 
করিমগঞ্জ, মার্চ ১৪,

পানীয় জলের সঙ্কটে জেরবার দক্ষিণ অসমের বরাক উপত্যকার করিমগঞ্জ জেলাসহ পাশ্ববর্তী ত্রিপুরা রাজ্যের কিছু এলাকা। এইসব এলাকার মানুষের মধ্যে অসন্তুষের পারদ চড়ছে। ত্রিপুরার অ্যাথারমুরা এলাকায় মানুষ জল না পেয়ে সড়কও অবরোধ করেন।

সরকার  জল সংরক্ষণ করার জন্য জনসচেতনতা অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে । মানুষ বিশুদ্ধ পানীর জল পান করবে তার জন্য জনস্বাস্থ্য কারিগরি বিভাগের নামে সরকারের একটি বিভাগও রয়েছে। সেই বিভাগের কাজ হচ্ছে মানুষকে বিশুদ্ধ পানীয় জল সরবরাহ করা, স্বচ্ছ থাকার জন্য নানা প্রকল্প নিয়ে মানুষের পাশে থাকার জন্য কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার কোটি কোটি টাকা মঞ্জুর করছে কিন্তু বাস্তবে কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না বলে জনগণের বিস্তর অভিযোগ রয়েছে ।

করিমগঞ্জ জেলায় জল সরবরাহের জন্য প্রকল্প আছে কিন্তু মানুষ জল পাচ্ছেনা । করিমগঞ্জের গ্রামে শতকরা ৯০ শতাংশ প্রকল্পই বন্ধ আছে পরিচর্যা এবং দেখভালের অভাবে ।

শহরে তিনটি প্রকল্প চলছে তার মধ্যে লঙ্গাই প্রকল্পটি সব থেকে বড় এবং পুরোনো । এই প্রকল্প থেকে শহরের অধিকাংশ এলাকায় বিশুদ্ধ জল সরবরাহ করা হয়। কিন্তু লঙ্গাই প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত শহরের প্রায় কুড়িটির অধিক এলাকার মানুষ জল থেকে বঞ্চিত । কারণ সেইসব এলাকায় পাইপলাইন আছে তবে জল নেই । তাছাড়া গোটা শহরের জাতীয় সড়ক থেকে পূর্ত সড়কের পাশে থাকা জল সরবরাহের প্রকল্পের পাইপ লাইন ফাটা থাকার ফলে রাস্তাঘাটের অপরিষ্কার জল পোকামাকড় প্রবেশ করে জলকে নোংরা করছে আর এই জল পান করে ছড়াচ্ছে অনেক রোগ।

পাইপ ফাটা থাকার ফলে অনেক জল এমনিতেই রাস্তায় পড়ে নষ্ট হয়ে যায়।

একদিকে জলের অপচয় অন্য দিকে ফাটা পাইপের জল সড়ককে নষ্ট করছে । প্রতিটি জায়গায় সড়কে ভাঙন দেখা দিয়েছে । আর এই ভাঙন থেকে গর্তের সৃষ্টি হচ্ছে আর তাতে পড়ে দুর্ঘটনা সংগঠিত হচ্ছে । করিমগঞ্জ জেলায় মানুষের ঘরে বিশুদ্ধ জলের জলের হাহাকার অন্যদিকে সরকারি বিভাগের গাফিলতির জন্য জলের অপচয় হচ্ছে । বার বার জেলা প্রশাসন থেকে বিভাগীয় আধিকারিক থেকে জননেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেও লাভ হয়নি জলের জন্য মানুষের দুর্ভোগ বেড়েই চলছে । তবে এবার নির্বাচনে জল নিয়ে জনতার দরবারে প্রশ্নের মুখে পড়বেন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরা, এটা নিশ্চিত ।

এদিকে পানীয়জল ও বিদ‍্যুৎ সমস‍্যা সমাধানের দাবিতে জাতীয় সড়ক অবরোধ করলেন ভুক্তভোগী জনতারা।ঘটনা ত্রিপুরার আটারোমুরা পাহাড়ের ৩৬ মাইল এলাকায়।দীর্ঘ তিনঘন্টা পর প্রশাসনের আশ্বাসে অবরোধ প্রত‍্যাহার করেন জনতা।জানাগেছে, ৩৬ মাইল এলাকায় পানীয়জল ও বিদ‍্যুৎ সমস‍্যা সমাধানের দাবি দীর্ঘদিনের। সেখানকার জনগণ এনিয়ে বারবার বিভাগীয় কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়ে যাচ্ছেন কিন্তু সমাস‍্যার কোনও সমাধান আজও হয়নি। বিভাগীয় কর্তৃপক্ষের চরম উদাসীনতার বিরুদ্ধে এবার মাঠে নামলেন জনতা।শনিবার সকাল থেকে সেখানকার বাসিন্দারা জলের পাত্র নিয়ে অসম -আগরতলা জাতীয় সড়কের ৩৬ মাইল এলাকায় অবরোধ গড়ে তুলেন। আচমকা অবরোধের ফলে সড়কের উভয়পাশে প্রচুর যানবাহন আটকা পড়ে এবং যাত্রীরা দুর্ভোগের শিকার হন। এদিকে দীর্ঘ তিন ঘন্টা পর পুলিশ পৌছে এবং দীর্ঘ আলোচনা শেষে এবং প্রশাসনের আশ্বাসে অবরোধ প্রত‍্যাহার করে নেওয়া হয় আন্দোলন।