রবিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / জম্মু ও কাশ্মীরের তাঁত সামগ্রী আমদানি করতে আগ্রহী কানাডা।

জম্মু ও কাশ্মীরের তাঁত সামগ্রী আমদানি করতে আগ্রহী কানাডা।

কনস্যুলেটের অপূর্ব শ্রীবাস্তব বলেন, কানাডায় হস্ত ও তাঁত শিল্পের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তিনি কানাডার ব্যবসায়ীদের জম্মু ও কাশ্মীরের হস্তশিল্প ও তাঁতজাত পণ্যের আমদানিতে উৎসাহ দেবেন বলে জানান।

শঙ্করী চৌধুরী,
জম্মু ও কাশ্মীরের হস্ত ও তাঁত পণ্য সামগ্রী আমদানি করতে আগ্রহী কানাডা। ইতিমধ্যে জম্মু-কাশ্মীর ঘুরে গিয়েছে একটি বিদেশি প্রতিনিধি দল। এবার আসছেন কানাডার বাণিজ্য প্রতিনিধিরা। আগামী এপ্রিলে তারা উপত্যকা সফর করবেন। জম্মু ও কাশ্মীরের সঙ্গে বাণিজ্য বৃদ্ধি এবং হস্তশিল্প ও হ্যান্ডলুম পণ্যের রপ্তানি নিয়ে আলোচনা করতেই তারা উপত্যকায় আসছেন। ইতিমধ্যেই জম্মু ও কাশ্মীর ট্রেড প্রোমোশন অর্গানাইজেশন (জেকেটিপিও) – এর সঙ্গে ইন্দো কানাডা চেম্বার অব কমার্সের (আইসিসিসি) একটি ভার্চুয়াল বৈঠকও হয়েছে। সেই বৈঠকের আয়োজন করেছিলেন টরেন্টোয় ভারতীয় কনস্যুলেট জেনারেল। কনস্যুলেটের অপূর্ব শ্রীবাস্তব বলেন, কানাডায় হস্ত ও তাঁত শিল্পের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তিনি কানাডার ব্যবসায়ীদের জম্মু ও কাশ্মীরের হস্তশিল্প ও তাঁতজাত পণ্যের আমদানিতে উৎসাহ দেবেন বলে জানান। এ প্রসঙ্গে জম্মু ও কাশ্মীরের হস্তশিল্প বিভাগের আহমেদ শাহ বলেন, কানাডায় হস্তশিল্প ও কাঠ পণ্যের বিপণনের জন্য সে দেশের প্রতিনিধিরা এপ্রিলে উপত্যকায় আসছেন। সম্প্রতি ভার্চুয়াল বৈঠক চলার সময় হস্তশিল্প ও তাঁতের তৈরি বিভিন্ন সামগ্রীর প্রদর্শনী ও তথ্য তুলে ধরা হয়। কাজে সন্তুষ্ট হয়ে এপ্রিলেই উপত্যকায় আসছেন কানাডার বাণিজ্য দল। তিনি আরো বলেন কাশ্মীরের তৈরী শাল, কার্পেট ও উলের চাদর আমেরিকায় প্রচুর পরিমাণে রপ্তানি করা হয়। কিন্তু কানাডায় প্রবল শীত সত্ত্বেও এসব সামগ্রীর রপ্তানি খুবই কম। তবুও জম্মু ও কাশ্মীরের হস্ত ও তাঁত শিল্পের প্রতি কানাডাবাসীর আগ্রহে আমরা খুশি। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, এবার সে দেশেও প্রচুর পরিমাণে এই সমস্ত পণ্য রপ্তানি করা যাবে। ২০১৯-২০ সনে জম্মু ও কাশ্মীরের তৈরি প্রায় ১ হাজার ৩৬০ কোটি টাকা মূল্যের উলের পোশাক বিদেশে রপ্তানি করা হয়েছে বলে তিনি জানান।