বুধবার, ৪ঠা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / ফ্যাট ঝরিয়ে ফিট এন্ড ফাইন

ফ্যাট ঝরিয়ে ফিট এন্ড ফাইন

আপনাকে আপনার বর্তমান ডায়েট নিয়েও ভাবতে হবে, ওয়ার্ক আউটের ৭৫ শতাংশ সাফল্য নির্ভর করে আপনার নিউট্রিশনাল অভ্যাসের ওপর।

অনুরণ ভট্টাচার্য

একবিংশ শতাব্দীর আধুনিক লাইফ স্টাইল ও জীবন শৈলীতে দাঁড়িয়ে প্রত্যেকেই চান ফ্যাট লস করে ফিট এন্ড ফাইন হতে। সে ক্ষেত্রে, একদিকে ছেলেরা যেমন চাইছে নিজের অতিরিক্ত চর্বি ঝরিয়ে সিক্স প্যাক অথবা এইট প্যাক বানিয়ে নিজেকে আকর্ষণীয় করে তুলতে, ঠিক তেমনি মেয়েরাও চাইছে নিজেদের শরীরের অতিরিক্ত মেদ থেকে নিজেকে মুক্ত করে আরো বেশি আকর্ষণীয় হয়ে উঠতে ।
ভারত তথা বিদেশের অনেক জায়গায় দেখা যায়, মানুষ অ্যাবস এক্সারসাইজ করতে গিয়ে অনেক টাকা এমনিতে নষ্ট করে ফেলে, কিন্তু আশানুরূপ কোন ফল পায় না। আমরা ভাবি, শুধু জিমে গিয়ে অ্যাবস এক্সেসাইজ করলেই ভুড়ির মেদ ঝরিয়ে ফেলবো, কিন্তু এটা পুরোপুরিই ভ্রান্ত ধারণা। অ্যাবস এক্সারসাইজ করার আগে আমাদের জানতে হবে যে ,আমাদের ঠিক কতটা চর্বি ঝরাতে হবে। মজার ব্যাপার এটাই যে, ছেলেদের শরীরে যখন ১৫ শতাংশ এবং মেয়েদের শরীরে ২০ শতাংশ চর্বি অবশিষ্ট থাকে তখনই অ্যাপস এর ঠিকঠাক স্ট্রাকচার বেরিয়ে আসে। আর তখন ঠিকঠাক এবডোমিনাল ট্রেনিং করলেই আশানুরূপ ফল পাওয়া যায়।

ভুড়ি কমাতে গেলে যে জিনিস গুলো মাথায় রাখতে হবে
আপনার লিফটিং পাওয়ার অনুযায়ী যত দ্রুত সম্ভব ওয়েট ট্রেনিং শুরু করুন। শুধু পেট নয় শরীরের অন্যান্য অংশের মেদ ঝরানোর জন্য এটি অত্যন্ত কার্যকর। এটি আপনার শরীরের বাড়তি স্ফূর্তি ও লিনমাসের যোগান দেওয়া ছাড়াও বডি টোনিংগেও বিশেষ সাহায্য করে থাকে। তাছাড়া এটি শরীরের মেটাবলিক রেটকেও ঠিকঠাক করে রাখতে সাহায্য করে।

তাছাড়া আপনাকে আপনার বর্তমান ডায়েট নিয়েও ভাবতে হবে, ওয়ার্ক আউটের ৭৫ শতাংশ সাফল্য নির্ভর করে আপনার নিউট্রিশনাল অভ্যাসের ওপর। আপনাকে দিনে অন্তত তিন লিটার জল পান করতে হবে।

আপনার রোজকার ডায়েটে যা যা অবশ্যই থাকতে হবে তা হচ্ছে , আনস্পয়েল্ড প্রোটিন, কমপ্লেক্স স্লো আ্যবজর্বিং কার্বোহাইড্রেট, প্রচুর পরিমাণে আঁশ যুক্ত সব্জি, লো ফ্যাট দুধ। বিশেষভাবে মনে রাখতে হবে, রান্নার তেল প্রতিদিন ২০ মিলিগ্রাম এর মধ্যেই যেন সীমাবদ্ধ থাকে সম্ভব হলে। সম্ভব হলে অলিভ অয়েল ব্যবহার করাই ভালো।

তাছাড়া প্রথাগতভাবে ব্রেকফাস্ট, লাঞ্চ, ডিনার-এর অভ্যাসকে ত্যাগ করে দিনে অন্তত পাঁচ থেকে ছয় বার খাবার অভ্যাস করতে হবে।

কম সোডিয়ামের খাবার-দাবারে অভ্যস্ত হোন।প্রতিদিন অন্তত পক্ষে ৬ ঘন্টা নিশ্চিন্তে ঘুমানোর চেষ্টা করুন এতে সারাদিনের ওয়ার্ক লোড থেকে রেহাই পাবেন।

যারা রেগুলার ওয়ার্কআউট করছেন, তারা অবশ্যই সপ্তাহে একবার, সম্ভব হলে দিনের বেলা আপনার পছন্দমত ভালো খাবার খাবেন, যাতে করে আপনার শরীরের কার্বোহাইড্রেট সাইক্লিং হতে পারে।

আপনার রোজকার ডায়েট প্ল্যান অবশ্যই কিছু মেডিসিন এড করতে পারেন, ৫০ গ্রাম ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট, ভিটামিন-সি ৫০০ এমজি, ভিটামিন ই ৬০০ এমজি, একটা করে মাল্টি ভিটামিন ক্যাপসুল, যা আপনার শরীরের ওয়ার্ক আউটের জন্য তৈরি হওয়া বাড়তি চাহিদাগুলোকে পূরণ করবে।
ফ্যাট ঝরিয়ে ফিট থাকা খুব কঠিন কাজ নয়। তবে শুধু জিমে গিয়ে এক্সেসাইজ নয়, তার সাথে আমাদের রোজকার নিয়মাবলীগুলোকেও মাথায় রেখে চলতে হবে।