শনিবার, ২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / গোবিন্দ চন্দ্র নাথ : শারীরিক বাধা নিয়েও আজ এক প্রতিষ্ঠিত শিল্পী ও সমাজ সেবক

গোবিন্দ চন্দ্র নাথ : শারীরিক বাধা নিয়েও আজ এক প্রতিষ্ঠিত শিল্পী ও সমাজ সেবক

শারীরিকভাবে বিশেষ সক্ষম হয়েও গোবিন্দ কোনো কাজেই পিছিয়ে নেই। মূর্তি বানানো থেকে শুরু করে বাঁশি বাজানো, সমাজসেবা সব কাজেই পারদর্শিতা প্রমান করে গোবিন্দ বর্তমানে এক বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব। এর আগে নেহরু যুব কেন্দ্রের স্বেচ্ছাসেবক হিসেবেও কাজ

শতানন্দ ভট্টাচার্য

প্রতিভা এবং কোন কিছু করার আগ্রহ থাকলে জীবনে কিছুই বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে না। এর উদাহরণ হচ্ছে দক্ষিণ অসমের বাঘমারা গ্রামের ২৯ বছরের গোবিন্দ চন্দ্র নাথ । শারীরিকভাবে বিশেষ সক্ষম হয়েও গোবিন্দ কোনো কাজেই পিছিয়ে নেই। মূর্তি বানানো থেকে শুরু করে বাঁশি বাজানো, সমাজসেবা সব কাজেই পারদর্শিতা প্রমান করে গোবিন্দ বর্তমানে এক বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব। এর আগে নেহরু যুব কেন্দ্রের স্বেচ্ছাসেবক হিসেবেও কাজ করেছে।

এছাড়া সর্ব ভারতীয় সংস্থা সক্ষম-এর হাইলাকান্দি জেলার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বেও গোবিন্দ কাজ করছে।

গোবিন্দের জীবনের সাফল্যের পেছনে তাঁর মা সিন্ধু রাণী নাথের অবদান রয়েছে। গোবিন্দের কথায় তাঁর মা তাঁকে সবসময় উৎসাহ যুগান সব কাজেই।

উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেই গোবিন্দ মূর্তি তৈরির কাজে লেগে যায়। দুর্গা, কালি, সরস্বতী, গনেশ, শিব, হনুমান, বিশ্বকর্মা সবধরণের ঠাকুর তৈরি করে গোবিন্দ ইতিমধ্যে অনেক সুনাম অর্জন করার সাথে সাথে অর্থও উপার্জন করেছে। এখনো সে মূর্তি বানানোর কাজে ব্রত রয়েছে।

উল্লেখ্য, গোবিন্দের জন্মগত ভাবেই পায়ের সমস্যা রয়েছে। জন্ম থেকেই তাঁর বাঁ পায়ের নিচ নেই। তবুও দমে যায় নি গোবিন্দ। লড়াই করে এগিয়ে যেতে শিখেছে। শারীরিক বাধা অতিক্রম করে সব কাজেই নিজেকে জড়িত করেছে।

বর্তমানে সে চাইল্ডলাইনের স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করছে।

গোবিন্দ বার বার স্বেচ্ছায় রক্তদান ও করেছে।

গোবিন্দের কোথায় সে “একজন স্বচ্ছল ও প্রতিষ্টিত ব্যক্তি”। ভবিষ্যতে দিব্যাঙ্গদের নিয়ে কাজ করতে আগ্রহী গোবিন্দ।