শুক্রবার, ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Big Picture Stories  / সামাজিক কাজের মাধ্যমে হিন্দুদের একত্র হওয়ার আহ্বান

সামাজিক কাজের মাধ্যমে হিন্দুদের একত্র হওয়ার আহ্বান

সামাজিক সমরসতা ও সহ-ভোজের আয়োজন করল রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের শ্রীভূমির জেলা সমিতি।

অরুপ রায়
করিমগঞ্জ, ফেব্রুয়ারি ১৬,

সামাজিক সমরসতা ও সহ-ভোজের আয়োজন করল রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের শ্রীভূমির জেলা সমিতি। করিমগঞ্জ সরস্বতী বিদ্যানিকেতন উচ্চতর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন ও ভারত মাতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভারম্ভ হয়। স্বাগত ভাষণে সংগঠনের দক্ষিণ অসম প্রান্তের সমরসতা প্রমুখ অঞ্জন গোস্বামী বলেন, বিগত নব্বই বছর থেকে সামাজিক সমরসতার মাধ্যমে হিন্দু সমাজকে একসূত্রে বাঁধার কাজ করে যাচ্ছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ। একাত্ম মানবতার দর্শন নিয়ে মানব সমাজের জয়যাত্রা শুরু হয়েছে। কিন্তু বিদেশি শাসনের নানা অপবাদ ও কুরীতির আগ্রাসনে হিন্দু সমাজের গৌরবোজ্জল একাত্মভাব ক্রমান্বয়ে লোপ পেতে চলেছে। এসব সমস্যা থেকে হিন্দু সমাজকে মুক্ত করার লক্ষ্যে ডাঃ কেশব বলিরাম হেডগেওয়ার সংঘের সূচনা করেছিলেন বলে জানান অঞ্জন গোস্বামী। তার মতে,ডাক্তারজী সংঘের কাজের সূচনা করলেও সমাজকে প্রেরণা জুগিয়েছেন সংঘের দ্বিতীয় সরসঙ্ঘচালক শ্রী গুরুজী। সংঘের প্রান্ত প্রচারক সঞ্জয় দেব বলেন, হিন্দুসমাজ একসময় সারা বিশ্বকে পথ দেখিয়েছে। কিন্তু মোগল ও ব্রিটিশ শাসনের পর থেকে হিন্দু সমাজে জাতিভেদ প্রথা, অস্পৃশ্যতা প্রভৃতির জন্ম হলো। যার ফলে বিভক্ত হয়ে পড়লো হিন্দু সমাজ। এই সমাজকে ঐক্যবদ্ধ রাখার জন্য সংঘ বিগত নয় দশক থেকে কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান প্রান্ত প্রচারক। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রান্ত সংঘচালক জ্যোৎস্নাময় চক্রবর্তী,বিভাগ সংঘচালক বিশ্ববন্দু চক্রবর্তী, জেলা সংঘচালক নর্মদা চক্রবর্তী প্রমুখ। জেলার অন্যতম সামাজিক সংগঠন পাপা’র সভাপতি ভোলানাথ মজুমদার সহ-ভোজের আয়োজনে সহযোগিতা করেন।