শুক্রবার, ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

NewsFile Institute
Home / Top Stories  / বর্তমান রাজ্য সরকার বাঙালি বিদ্বেষী, অভিযোগ বরাক ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের

বর্তমান রাজ্য সরকার বাঙালি বিদ্বেষী, অভিযোগ বরাক ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের

বর্তমান রাজ্য সরকার বাঙালি বিদ্বেষী, অভিযোগ বরাক ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের

স্বপ্ননীল ভট্টাচার্য,

শিলচর, ফেব্রুয়ারি ১৪:

সম্প্রতি আসাম বিধানসভায় বাংলায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিজেপি বিধায়ক মৃনাল শইকিয়ার বিরোধিতার মুখোমুখি হন উত্তর করিমগঞ্জের বাঙালি বিধায়ক কমলাক্ষ দে পুরকায়স্থ। আজ এ নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন বরাক ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের সদস্যরা।

এক প্রেস বিবৃতিতে আজ বি ডি এফ আহ্বায়ক পার্থ দাস ও জহর তারণ বলেন যে এর আগে মূখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল বিধানসভাতেই বাংলাকে একটি সমৃদ্ধ ভাষা বলে প্রশংসা করলেন আর সেখানে তারই দলের বিধায়কের এই বিরোধিতার অর্থ কি? তার মানে এরা মুখে প্রশংসা করলেও ভিতরে বাঙালি বিদ্বেষ পুষে রাখেন, যার বহিঃপ্রকাশ এভাবে ঘটে মধ্যে মধ্যে।

তারা বলেন বিজেপির রাজ্যস্তরের সব নেতা মন্ত্রীরা উগ্র জাতীয়তাবাদীদের দ্বারা প্রভাবিত এবং সেজন্যই এই সরকারের আমলে বাঙালিরা সবদিক দিয়ে বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন। তারা আরো বলেন রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্বের বাঙালি বিরোধীতার ভুরি ভুরি উদাহরণ ইতিমধ্যে জনগন দেখতে পেয়েছেন।

তাই রাজ্যের দ্বিতীয় বৃহত্তম ভাষা হওয়া সত্ত্বেও বাংলার সরকারি সহযোগী ভাষার মর্যাদা জোটেনা। আসম আন্দোলনের শহীদ পরিবারের প্রতি সরকারের খেয়াল থাকলেও বরাকের ভাষা শহীদদের সরকারি স্বীকৃতি জোটেনা। বরাক উপত্যকার সরকারি ভাষা বাংলা হওয়া সত্ত্বেও এখানকার কর্মপ্রার্থীদের অসমীয়া ভাষায় কিম্বা অসমীয়া টাইপিং এর পরীক্ষা দিতে বাধ্য করা হয় । এসবই এই দলটির বাঙালি বিরোধী চরিত্রের পরিচয় I

বরাক ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট এর আরেক আহ্বায়ক হৃষিকেশ দে বলেন এই রাজ্যে সব গোষ্ঠীর প্রার্থীদের সরকারি চাকরির সুযোগ দেওয়া হচ্ছে আর বঞ্চিত হচ্ছেন শুধু বাঙালিরা। তিনি আরো বলেন যে রাজ্যের ডিটেনশন ক্যাম্পে যারা আবদ্ধ রয়েছেন তাঁরা সবাই বাঙালি।এখনো বাঙালিদের নিয়মিত ‘ ডি’ নোটিশ ইস্যু করা হচ্ছে। যে দলের প্রধানমন্ত্রী নিজে বলেছিলেন যে সব ডিটেনশন ক্যাম্প ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে সেই দলের সরকারই তৈরি করেছে এশিয়ার বৃহত্তম ডিটেনশন ক্যাম্প। এরপরেও এরা কোন যুক্তিতে বাঙালির ভোট চায়? — প্রশ্ন করেন তিনি।

বিডিএফ সদস্যরা এদিন বলেন রাজ্যের বাঙালিদের এসবের যোগ্য প্রত্যুত্তর দেবার সময় আসছে। সেইসঙ্গে তারা সমস্ত বাঙালিদের আগামী নির্বাচনে এই বাঙালি বিরোধী দলকে ভোট না দেবার আহ্বান জানান।